Breaking News

অক্টোবরে ৪৪তম বিসিএস বিজ্ঞপ্তি, বয়সসীমা শিথিলের পরিকল্পনা

0 0

নিজস্ব প্রতিবেদক : করোনা পরিস্থিতি দেড় বছর ধরে বন্ধ রয়েছে নিয়োগ পরীক্ষা। এ অবস্থায় অনেকের বয়স শেষ হওয়ার পথে। বয়স বাড়ানোর দাবিতে বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করছেন চাকরি প্রার্থীরা। এ অবস্থায় আরেকটি বিসিএসের বিজ্ঞপ্তির পরিকল্পনা করছে বাংলাদেশ সরকারি কর্মকমিশন (পিএসসি)। জানা গেছে, মূলত চাকরি প্রার্থীরা যাতে তাদের ৩০ বছরের বয়সসীমার মধ্যেই এ চাকরির আবেদন করতে পারেন সেটি বিবেচনায় রেখে এ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হবে। এতে বয়সসীমা শিথিল করা হতে। অর্থাৎ যাদের সম্প্রতি বয়স শেষ হয়েছে। তারাও আবেদনের সুযোগ পেতে পারেন। তবে কত সময় বিবেচনা করা সেটি এখনো নিশ্চিত নয়। পিএসসির একজন কর্মকর্তা বলেন, বর্তমানে চারটি বিসিএস নিয়ে কাজ চলছে। ৩৮ এর নন ক্যাডার নিয়োগ কার্যক্রম, ৪০ এর ভাইভা, ৪১ এর প্রিলিমিনারির ফল প্রকাশ ও ৪৩ এর আবেদন প্রক্রিয়া। এর মধ্যে ৩৯ ও ৪২ বিশেষ বিসিএসে ডাক্তার নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। তিনি বলেন, মূলত প্রার্থীদের যাদের বয়স শেষ হয়ে যাচ্ছে, করোনার কারণে দীর্ঘ বিরতিতে যারা বিজ্ঞপ্তি পাননি তাদের কথা বিবেচনায় রেখে ৪৩ এর পর পরই ৪৪ এর বিজ্ঞপ্তি দেওয়ার চিন্তা করা হচ্ছে।
পিএসসি চেয়ারম্যান মো. সোহরাব হোসাইন এ প্রসঙ্গে বলেন, সাধারণত বছরে একটা অন্তত বিসিএস পরীক্ষা নেওয়ার চিন্তা নিয়ে আমরা এগুচ্ছি। বর্তমানে ৪৩ এর আবেদন চলছে। শিক্ষার্থীদের কথা চিন্তা করে কয়েক দফা আবেদনের সময় বাড়ানো হয়েছে। জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের চাহিদা পেলে অক্টোবর মাস নাগাদ ৪৪তম বিসিএসেরও বিজ্ঞপ্তি দেওয়ার চিন্তা আছে। ৪৪তম বিসিএস শিক্ষার জন্য বিশেষ হবে নাকি সাধারণ বিসিএস হবে সে বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, এখনো কিছু ঠিক হয়নি। জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে কি পরিমাণ চাহিদা দেওয়া হয় সেটার আলোকে বিজ্ঞপ্তি হবে।
এ বিষয়ে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের পরিচালক (প্রশাসন) শাহেদুল খবির বলেন, গত ৪১ ও ৪৩ বিসিএসে শিক্ষার জন্য শূন্য পদের চাহিদা অনুযায়ী বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হয়েছে। এখনো শূন্যপদ তৈরি হয়নি। সে হিসেবে ৪৪ বিসিএসে শিক্ষার জন্য বিশেষ নেওয়ার সম্ভাবনা নেই।
জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, গত ফেব্রুয়ারিতে সব মন্ত্রণালয় ও বিভাগের কাছে প্রথম শ্রেণির শূন্য পদের চাহিদা চেয়ে চিঠি দেওয়া হয়। প্রায় সব মন্ত্রণালয় ও বিভাগ থেকে চাহিদা পাওয়া গেছে। কয়েকটি মন্ত্রণালয়ের চাহিদা বাকি আছে। সেগুলো পাওয়ার পর সবকটি যোগ করে সমপরিমাণ ক্যাডার নিয়োগ দিতে পিএসসিকে নির্দেশনা দেবে মন্ত্রণালয়। কর্মকর্তারা বলছেন, জুলাই মাসের মধ্যে শূন্য পদের চাহিদা পিএসসির কাছে পাঠানো সম্ভব হবে। এরপর পিএসসি সেগুলো প্রক্রিয়া করে সেপ্টেম্বর বা অক্টোবর মাসে বিজ্ঞপ্তি দিতে পারে। এর আগে বিশেষ কোনো বিসিএস হওয়ার সম্ভাবনা নেই বলে জানান জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা। বর্তমানে ৪৩তম সাধারণ বিসিএসের আবেদন চলছে। গত বছরের ৩০ নভেম্বর বিভিন্ন ক্যাডারে এক হাজার ৮১৪ জন কর্মকর্তা নিয়োগের জন্য ৪৩তম বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে পিএসসি। গত ৩০ ডিসেম্বর থেকে আবেদন শুরু হয়। কয়েক দফা বাড়িয়ে আবেদনের তারিখ ৩০ জুন পর্যন্ত করা হয়েছে। এ বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে আগামী ২৯ অক্টোবর।

Happy
Happy
0 %
Sad
Sad
0 %
Excited
Excited
0 %
Sleepy
Sleepy
0 %
Angry
Angry
0 %
Surprise
Surprise
0 %

Average Rating

5 Star
0%
4 Star
0%
3 Star
0%
2 Star
0%
1 Star
0%

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *