The Daily Ajker Prottasha

সকালের যেসব অভ্যাস শরীরের জন্য হতে পারে ক্ষতিকর

0 0
Read Time:5 Minute, 37 Second

লাইফস্টাইল ডেস্ক : সকালে ঘুম থেকে উঠেই কর্মব্যস্ত দিনের জন্য প্রস্তুতি নেন কমবেশি সবাই। অনেকে ঘুম থেকে উঠেই চা বা কফি মগে চুমুক দেন, কেউ আবার সকালের নাস্তায় খান ভারি ও তৈলাক্ত সব খাবার। আবার কেউ কেউ দীর্ঘ সময় ধরে ফোন চেক করেন, তাও আবার বাথরুমে বসে!
অনেকেই আবার গোসল না করেই বেরিয়ে পড়েন, কেউ কেউ তো গরম পানি ছাড়া গোসলই করেন না। এমন অনেক অভ্যাস আছে সবার মধ্যেই। তবে সকালের কিছু অভ্যাস অজান্তেই হয়তো আপনার ক্ষতি করছে, আর আপনি তা টেরও পাচ্ছেন না। চলুন তবে জেনে নেওয়া যাক, সকালের ঠিক কোন কোন অভ্যাস স্বাস্থ্যের জন্য হতে পারে ক্ষতিকর-
সকালে গোসল না করা : সকালে ঘুম থেকে উঠেই গোসল করে বাইরে বের হওয়ার অভ্যাস স্বাস্থ্যের জন্য সত্যিই অনেক উপকারী। হার্ভার্ডের এক চিকিৎসকের মতে, সকালে গোসল করলে মস্তিষ্ক আরও সক্রিয় হয় ফলে বিভিন্ন সমস্যার সমাধান মেলে সহজেই।
গরম পানি দিয়ে গোসল করা : সকালে হালকা গরম পানি দিয়ে গেসলের অভ্যাস অনেকেরই আছে। তবে সব সময় এ অভ্যাস বিপদ ডেকে আনতে পারে। কারণ গরম পানি ত্বকের শুষ্কতা বাড়ায়। অন্যদিকে ঠান্ডা পানি দিয়ে গোসল করলে মস্তিষ্কের কার্যকলাপ উন্নত হয় ও ইমিউন সিস্টেম ভালোভাবে কাজ করে। বিজ্ঞানীদের মতে, যারা নিয়মিত ঠান্ডা পানিতে গোসল করেন তারা বছরে প্রায় ৯ পাউন্ড ওজন হারাতে পারেন।
দীর্ঘ সময় ধরে ফোন চেক করা : সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে বর্তমানে সবাই সরব থাকেন। তবে বিশেষজ্ঞদের মতে, অন্যদের জীবনে চেক ইন করার ক্ষেত্রে আপনার সময় নষ্ট করা বন্ধ করুন। ওই সময় নিজের জন্য ব্যয় করুন! দীর্ঘক্ষণ স্মার্টফোন ব্যবহার চোখের ক্ষতি তো করেই, এর পাশাপাশি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের বিভিন্ন বিষয় আপনার মনে নেতিবাচক অনুভুতির সৃষ্টি করতে পারে।
সিরিয়াল খাওয়া : সকালের নাস্তায় অনেকেই সিরিয়াল খান। প্রক্রিয়াজাত এই খাবারে প্রচুর চিনি থাকে। যা রক্তে শর্করার পরিমাণ বাড়িয়ে তোলে। ফলে আপনার শরীর ক্লান্ত হয়ে পড়তে পারে। একই ভাবে সকালের জন্য দুধ কিংবা দইও সকালে খাওয়া উচিত নয়। বিখ্যাত এক ডায়েটিশিয়ান চেলসি আমের সম্প্রতি বলেছেন, সকালে এক বাটি সিরিয়াল খাওয়ার চেয়ে এক টুকরো পিজ্জা খাওয়া স্বাস্থ্যকর। পিজ্জায় প্রোটিন, চর্বি ও কার্বোহাইড্রেট থাকে, যা হতে পারে সকালের সুষম নাস্তা। তবে এক টুকরোর বেশি খাওয়া যাবে না। এছাড়া আপনি সকালের নাস্তায় ডিম, কটেজ পনির কিংবা চর্বিছাড়া মাংসও খেতে পারেন।
খাওয়ার পর দাঁত ব্রাশ করা : খাওয়ার পরপরই কখনো দাঁত ব্রাশ করবেন না। কারণ খাবার খাওয়ার পরে দাঁতের এনামেল দুর্বল হয়ে পড়ে, বিশেষ করে যদি আপনি ফল, সাইট্রাস বা সোডা পান করেন। এসব খাবারে থাকা সাইট্রিক অ্যাসিড ও ফসফরিক অ্যাসিড দাঁতের এনামেল দুর্বল করে দেয়। এর পরিবর্তে কুলকুচি করে ডেন্টাল ফ্লস দিয়ে খাবারের অবশিষ্টাংশগুলো দাঁতের ফাঁকা থেকে সরিয়ে ফেলুন। যে কোনো খাবার খাওয়ার ৩০ মিনিট পর দাঁত ব্রাশ করুন।
ব্ল্যাক কফি পান করা : ঘুম থেকে ওঠার ঠিক পরেই ব্ল্যাক কফি পান করলে কর্টিসল হরমোনের মাত্রা বাড়িয়ে দেয়, যা উদ্বেগের সৃষ্টি করে। আর ক্ষুধার্ত অবস্থায় কফি পান করলে গ্যাস্ট্রাইটিস হতে পারে। গবেষণায় দেখা গেছে, সকালে প্রথম কাপ কফি পান করার সর্বোত্তম সময় হলো ঘুম থেকে ওঠার ৩-৪ ঘণ্টা পর। আর যদি সকালে কফি পান করতেই হয় তাহলে এতে সামান্য দুধ বা লো ফ্যাট ক্রিম যোগ করুন। তাহলে কফির তীব্র প্রভাব শরীরের বেশি ক্ষতি করবে না।
বিছানা পরিষ্কার করা : ঘুম থেকে ওঠার পরপরই কখনো বিছানা পরিষ্কার করতে যাবেন না। এতে ধুলাবালি আবারও ঘরের পরিবেশ মিশে যাবে। সূত্র: ব্রাইট সাইড

Happy
Happy
0 %
Sad
Sad
0 %
Excited
Excited
0 %
Sleepy
Sleepy
0 %
Angry
Angry
0 %
Surprise
Surprise
0 %

Average Rating

5 Star
0%
4 Star
0%
3 Star
0%
2 Star
0%
1 Star
0%

Leave a Reply

Your email address will not be published.