ঢাকা ০৫:২৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

লেখাকে গানে রূপান্তরের পরীক্ষা চালাচ্ছে ইউটিউব

  • আপডেট সময় : ০৯:৫৫:০৯ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৯ নভেম্বর ২০২৩
  • ৩৩ বার পড়া হয়েছে

প্রযুক্তি ডেস্ক : নতুন একটি জেনারেটিভ এআই’র পরীক্ষা চালাচ্ছে ইউটিউব। এর মাধ্যমে সাধারণ টেক্সট থেকে মিউজিক ট্র্যাক তৈরি করা যাবে। এই ফিচারকে ইউটিউব শর্টসে ‘ড্রিম ট্র্যাক’ নামে পরিচয় করিয়ে দিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। এখানে গুগলের ডিপ-মাইন্ডের সবচেয়ে আধুনিক জেনারেশন মডেল লিরাকে ব্যবহার করা হয়েছে।
ইউটিউব মিউজিকের বৈশ্বিক প্রধান লিওর কোহেন বলেন, ‘প্রাথমিক অবস্থায় এই পরীক্ষাটি ডিজাইন করা হয়েছে শিল্পী এবং ক্রিয়েটরদের মাঝে সম্পর্কে গভীর করার জন্য, এই প্রযুক্তি কীভাবে কাজে লাগানো যেতে পারে তা বোঝানোর জন্য। বর্তমানে এই কাজের জন্য ৯ জন শিল্পীকে বাছাই করা হয়েছে।‘
কোহেন বলেন, ‘প্রাথমিক অবস্থায় যুক্তরাষ্ট্রের নির্দিষ্ট কিছু ক্রিয়েটরকে এই সুযোগ দেওয়া হয়েছে, তাদের শর্টসে ৩০ সেকেন্ডের জন্য ট্র্যাক তৈরি করার। আবার এর পাশাপাশি গুণগুণ করা সুর থেকেও মিউজিক তৈরির পরীক্ষাও চালাচ্ছে ইউটিউব।’

 

যোগাযোগ

সম্পাদক : ডা. মোঃ আহসানুল কবির, প্রকাশক : শেখ তানভীর আহমেদ কর্তৃক ন্যাশনাল প্রিন্টিং প্রেস, ১৬৭ ইনার সার্কুলার লার রোড, মতিঝিল থেকে মুদ্রিত ও ৫৬ এ এইচ টাওয়ার (৯ম তলা), রোড নং-২, সেক্টর নং-৩, উত্তরা মডেল টাউন, ঢাকা-১২৩০ থেকে প্রকাশিত। ফোন-৪৮৯৫৬৯৩০, ৪৮৯৫৬৯৩১, ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৭৯১৪৩০৮, ই-মেইল : [email protected]
আপলোডকারীর তথ্য

লেখাকে গানে রূপান্তরের পরীক্ষা চালাচ্ছে ইউটিউব

আপডেট সময় : ০৯:৫৫:০৯ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৯ নভেম্বর ২০২৩

প্রযুক্তি ডেস্ক : নতুন একটি জেনারেটিভ এআই’র পরীক্ষা চালাচ্ছে ইউটিউব। এর মাধ্যমে সাধারণ টেক্সট থেকে মিউজিক ট্র্যাক তৈরি করা যাবে। এই ফিচারকে ইউটিউব শর্টসে ‘ড্রিম ট্র্যাক’ নামে পরিচয় করিয়ে দিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। এখানে গুগলের ডিপ-মাইন্ডের সবচেয়ে আধুনিক জেনারেশন মডেল লিরাকে ব্যবহার করা হয়েছে।
ইউটিউব মিউজিকের বৈশ্বিক প্রধান লিওর কোহেন বলেন, ‘প্রাথমিক অবস্থায় এই পরীক্ষাটি ডিজাইন করা হয়েছে শিল্পী এবং ক্রিয়েটরদের মাঝে সম্পর্কে গভীর করার জন্য, এই প্রযুক্তি কীভাবে কাজে লাগানো যেতে পারে তা বোঝানোর জন্য। বর্তমানে এই কাজের জন্য ৯ জন শিল্পীকে বাছাই করা হয়েছে।‘
কোহেন বলেন, ‘প্রাথমিক অবস্থায় যুক্তরাষ্ট্রের নির্দিষ্ট কিছু ক্রিয়েটরকে এই সুযোগ দেওয়া হয়েছে, তাদের শর্টসে ৩০ সেকেন্ডের জন্য ট্র্যাক তৈরি করার। আবার এর পাশাপাশি গুণগুণ করা সুর থেকেও মিউজিক তৈরির পরীক্ষাও চালাচ্ছে ইউটিউব।’