ঢাকা ০৯:২৮ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ২৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::

পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর জন্য বরাদ্দ কমেছে

  • আপডেট সময় : ০২:৩১:০৩ অপরাহ্ন, বুধবার, ১২ জুন ২০২৪
  • ৪৩ বার পড়া হয়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক : দেশের পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর জন্য বাজেট বরাদ্দ কমেছে। ৫৫টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য আগামী ২০২৪-২৫ অর্থবছরে ১১ হাজার ৬৯০ কোটি ৪ লাখ টাকার বাজেট অনুমোদন করেছে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি)। বিদায়ী অর্থবছরে ৫৩টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য ১২ হাজার ১৮৫ কোটি ৩৩ লাখ টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছিল।
গতকাল বুধবার ইউজিসিতে অনুষ্ঠিত ১৬৭তম পূর্ণ কমিশন সভায় এই বাজেট অনুমোদিত হয়। এ ছাড়া সভায়, ইউজিসির ৮৭ কোটি ৪০ লাখ টাকার (নিজস্ব আয়সহ) বাজেট অনুমোদন করা হয়। বিদায়ী অর্থবছরে ইউজিসির জন্য ৭৭ কোটি ৪৫ লাখ টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছিল। চলতি অর্থবছরের বাজেট ঘোষণার সময় দেশের পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর জন্য ১২ হাজারের বেশি টাকা বরাদ্দ হলেও আজ অনুমোদিত সংশোধিত বাজেটে তা কমে দাঁড়িয়েছে ৯ হাজার ১৫৫ কোটি ৩৬ লাখ টাকা।
আসন্ন অর্থবছরের জন্য বাজেটে কম বরাদ্দের বিষয়ে ইউজিসির একাধিক কর্মকর্তার ভাষ্য এবার বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে উন্নয়ন প্রকল্প কম। মূলত এ কারণে আসন্ন অর্থবছরের জন্য বাজেটে বরাদ্দ কমেছে। ইউজিসির সংবাদ বিজ্ঞপ্তি বলা হয়, ইউজিসির আজকের সভায় কার্যপত্র তুলে ধরেন ইউজিসি সচিব ফেরদৌস জামান। আর চলতি ২০২৩-২০২৪ অর্থবছরের সংশোধিত বাজেট এবং ২০২৪-২৫ অর্থবছরের মূল বাজেটের বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরেন ইউজিসির অর্থ ও হিসাব বিভাগের পরিচালক মো. রেজাউল করিম হাওলাদার।
সভায় জানানো হয়, ২০২৪-২৫ অর্থবছরে মূল বাজেটে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য সরকারের অনুদান হিসেবে ৫ হাজার ৫০০ কোটি টাকার সংস্থান করা হয়। পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের মাধ্যমে অর্জিত রাজস্ব আয় ধরা হয় ১ হাজার ২৭২ কোটি ৫৩ কোটি টাকা। এ ছাড়া ২০২৪-২৫ অর্থবছরে মূল বাজেটে ৩১টি প্রকল্পের অনুকূলে ৪ হাজার ৯১৭ কোটি ৫১ লাখ টাকার উন্নয়ন বাজেট অনুমোদন দেওয়া হয়।
পূর্ণ কমিশন সভায় ২০২৪-২৫ অর্থবছরে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর জন্য গবেষণা খাতে ১৮৮ কোটি ৬৫ লাখ টাকা বরাদ্দের অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। ইউজিসি সূত্রে জানা গেছে বিদায়ী অর্থবছরের জন্য ১৭৪ কোটি টাকা গবেষণা খাতে বরাদ্দ দেওয়া হয়েছিল। অবশ্য সংশোধিত বাজেটে গবেষণা খাতে বরাদ্দ কমে হয় ১৪৫ কোটি টাকার কিছু বেশি। এ ছাড়া ইউজিসি থেকে ২০২৪-২৫ অর্থবছরে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকদের বিদেশে পিএইচডি স্কলারশিপের জন্য ১০ কোটি টাকাসহ গবেষণা খাতে ৩৩ কোটি টাকা বরাদ্দ অনুমোদন করা হয়।
আসন্ন অর্থবছরে সবচেয়ে বেশি রাজস্ব বাজেট পেয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ৮০৪ কোটি ৪১ লাখ টাকা। গবেষণা খাতেও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়কে সবচেয়ে বেশি ২০ কোটি টাকা বাজেট বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। সভায় সভাপতিত্বের বক্তব্যে ইউজিসি চেয়ারম্যান (অতিরিক্ত দায়িত্ব) অধ্যাপক মুহাম্মদ আলমগীর বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে সরকার ও ইউজিসির আর্থিক নীতিমালা অনুসরণ করে বাজেট বাস্তবায়নের আহ্বান জানান। একই সঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে ব্যয় নিয়ন্ত্রণ এবং নিজস্ব আয় বৃদ্ধির ওপরও গুরুত্বারোপ করেন তিনি। সভায় ইউজিসি উপস্থিত ছিলেন ইউজিসির সদস্য অধ্যাপক মো. সাজ্জাদ হোসেন, অধ্যাপক বিশ্বজিৎ চন্দ, অধ্যাপক হাসিনা খান, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক সাদেকা হালিম, চট্টগ্রাম মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক মো. ইসমাইল খান, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ডিজিটাল ইউনিভার্সিটির উপাচার্য অধ্যাপক মুহাম্মদ মাহফুজুল ইসলাম, কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক এ এফ এম আব্দুল মঈন, বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক মো. কামরুল আলম খান, পরিকল্পনা কমিশনের আর্থসামাজিক অবকাঠামোর সদস্য (সচিব) রেহানা পারভীন প্রমুখ।

 

ট্যাগস :

যোগাযোগ

সম্পাদক : ডা. মোঃ আহসানুল কবির, প্রকাশক : শেখ তানভীর আহমেদ কর্তৃক ন্যাশনাল প্রিন্টিং প্রেস, ১৬৭ ইনার সার্কুলার লার রোড, মতিঝিল থেকে মুদ্রিত ও ৫৬ এ এইচ টাওয়ার (৯ম তলা), রোড নং-২, সেক্টর নং-৩, উত্তরা মডেল টাউন, ঢাকা-১২৩০ থেকে প্রকাশিত। ফোন-৪৮৯৫৬৯৩০, ৪৮৯৫৬৯৩১, ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৭৯১৪৩০৮, ই-মেইল : [email protected]
আপলোডকারীর তথ্য

আমানতের অর্থ লুটে খাচ্ছে ব্যাংক : পিআরআই

পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর জন্য বরাদ্দ কমেছে

আপডেট সময় : ০২:৩১:০৩ অপরাহ্ন, বুধবার, ১২ জুন ২০২৪

নিজস্ব প্রতিবেদক : দেশের পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর জন্য বাজেট বরাদ্দ কমেছে। ৫৫টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য আগামী ২০২৪-২৫ অর্থবছরে ১১ হাজার ৬৯০ কোটি ৪ লাখ টাকার বাজেট অনুমোদন করেছে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি)। বিদায়ী অর্থবছরে ৫৩টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য ১২ হাজার ১৮৫ কোটি ৩৩ লাখ টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছিল।
গতকাল বুধবার ইউজিসিতে অনুষ্ঠিত ১৬৭তম পূর্ণ কমিশন সভায় এই বাজেট অনুমোদিত হয়। এ ছাড়া সভায়, ইউজিসির ৮৭ কোটি ৪০ লাখ টাকার (নিজস্ব আয়সহ) বাজেট অনুমোদন করা হয়। বিদায়ী অর্থবছরে ইউজিসির জন্য ৭৭ কোটি ৪৫ লাখ টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছিল। চলতি অর্থবছরের বাজেট ঘোষণার সময় দেশের পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর জন্য ১২ হাজারের বেশি টাকা বরাদ্দ হলেও আজ অনুমোদিত সংশোধিত বাজেটে তা কমে দাঁড়িয়েছে ৯ হাজার ১৫৫ কোটি ৩৬ লাখ টাকা।
আসন্ন অর্থবছরের জন্য বাজেটে কম বরাদ্দের বিষয়ে ইউজিসির একাধিক কর্মকর্তার ভাষ্য এবার বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে উন্নয়ন প্রকল্প কম। মূলত এ কারণে আসন্ন অর্থবছরের জন্য বাজেটে বরাদ্দ কমেছে। ইউজিসির সংবাদ বিজ্ঞপ্তি বলা হয়, ইউজিসির আজকের সভায় কার্যপত্র তুলে ধরেন ইউজিসি সচিব ফেরদৌস জামান। আর চলতি ২০২৩-২০২৪ অর্থবছরের সংশোধিত বাজেট এবং ২০২৪-২৫ অর্থবছরের মূল বাজেটের বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরেন ইউজিসির অর্থ ও হিসাব বিভাগের পরিচালক মো. রেজাউল করিম হাওলাদার।
সভায় জানানো হয়, ২০২৪-২৫ অর্থবছরে মূল বাজেটে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য সরকারের অনুদান হিসেবে ৫ হাজার ৫০০ কোটি টাকার সংস্থান করা হয়। পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের মাধ্যমে অর্জিত রাজস্ব আয় ধরা হয় ১ হাজার ২৭২ কোটি ৫৩ কোটি টাকা। এ ছাড়া ২০২৪-২৫ অর্থবছরে মূল বাজেটে ৩১টি প্রকল্পের অনুকূলে ৪ হাজার ৯১৭ কোটি ৫১ লাখ টাকার উন্নয়ন বাজেট অনুমোদন দেওয়া হয়।
পূর্ণ কমিশন সভায় ২০২৪-২৫ অর্থবছরে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর জন্য গবেষণা খাতে ১৮৮ কোটি ৬৫ লাখ টাকা বরাদ্দের অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। ইউজিসি সূত্রে জানা গেছে বিদায়ী অর্থবছরের জন্য ১৭৪ কোটি টাকা গবেষণা খাতে বরাদ্দ দেওয়া হয়েছিল। অবশ্য সংশোধিত বাজেটে গবেষণা খাতে বরাদ্দ কমে হয় ১৪৫ কোটি টাকার কিছু বেশি। এ ছাড়া ইউজিসি থেকে ২০২৪-২৫ অর্থবছরে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকদের বিদেশে পিএইচডি স্কলারশিপের জন্য ১০ কোটি টাকাসহ গবেষণা খাতে ৩৩ কোটি টাকা বরাদ্দ অনুমোদন করা হয়।
আসন্ন অর্থবছরে সবচেয়ে বেশি রাজস্ব বাজেট পেয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ৮০৪ কোটি ৪১ লাখ টাকা। গবেষণা খাতেও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়কে সবচেয়ে বেশি ২০ কোটি টাকা বাজেট বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। সভায় সভাপতিত্বের বক্তব্যে ইউজিসি চেয়ারম্যান (অতিরিক্ত দায়িত্ব) অধ্যাপক মুহাম্মদ আলমগীর বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে সরকার ও ইউজিসির আর্থিক নীতিমালা অনুসরণ করে বাজেট বাস্তবায়নের আহ্বান জানান। একই সঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে ব্যয় নিয়ন্ত্রণ এবং নিজস্ব আয় বৃদ্ধির ওপরও গুরুত্বারোপ করেন তিনি। সভায় ইউজিসি উপস্থিত ছিলেন ইউজিসির সদস্য অধ্যাপক মো. সাজ্জাদ হোসেন, অধ্যাপক বিশ্বজিৎ চন্দ, অধ্যাপক হাসিনা খান, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক সাদেকা হালিম, চট্টগ্রাম মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক মো. ইসমাইল খান, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ডিজিটাল ইউনিভার্সিটির উপাচার্য অধ্যাপক মুহাম্মদ মাহফুজুল ইসলাম, কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক এ এফ এম আব্দুল মঈন, বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক মো. কামরুল আলম খান, পরিকল্পনা কমিশনের আর্থসামাজিক অবকাঠামোর সদস্য (সচিব) রেহানা পারভীন প্রমুখ।