ঢাকা ০১:২৮ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ৯ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

গুগল প্লেতে বন্ধ হচ্ছে সন্দেহজনক লেনদেন

  • আপডেট সময় : ১২:০৩:৫৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ৪ ডিসেম্বর ২০২৩
  • ২০ বার পড়া হয়েছে

প্রযুক্তি ডেস্ক : জনপ্রিয় ইউপিআই পেমেন্ট প্ল্যাটফর্মগুলোর মধ্যে অন্যতম গুগল প্লে। যার মাধ্যমে অনলাইন মানি ট্রান্সফার এবং রিসিভিং প্ল্যাটফর্ম, যা আর্টিফিসিয়াল ইন্টেলিজেন্সের শক্তিকে কাজে লাগিয়ে সবাইকে ডিজিটাল পেমেন্ট করা যায়।
গুগল প্লে নিরাপদ পেমেন্টের জন্য একটি উন্নত জালিয়াতি প্রতিরোধ প্রযুক্তি যুক্ত করেছে। এই সিস্টেম সন্দেহজনক লেনদেনের রিয়েল-টাইম স্বীকৃতিসহ ব্যবহারকারীদের সুরক্ষিত করতে সহায়তা করে। নিরাপত্তা ব্যবস্থা বিকাশের জন্য অন্যান্য শিল্প অংশীদারদের সাথে সহযোগিতা করবে। ব্যবহারকারীর নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য গুগল ভূমিকা পালন করলেও ব্যবহারকারীদের সতর্ক থাকতে হবে। গুগল প্লে ব্যবহারকারীদের সুরক্ষিত রাখতে টেক জায়ান্ট সতর্কতার রূপরেখা তৈরি করেছে যা অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হয়েছে। সমালোচনামূলক নির্দেশিকাগুলোর পাশাপাশি, স্ট্যান্ডআউট পরামর্শে বলা হয়েছে যে, ব্যবহারকারীদের তাদের হ্যান্ডসেটে কোনো স্ক্রিন-শেয়ারিং অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করা উচিত নয়, যাতে তারা গুগল প্লেতে তাদের লেনদেন আরো সুরক্ষিত করতে পারেন।
স্ক্রিন শেয়ারিং অ্যাপ্লিকেশন: স্ক্রিন-শেয়ারিং অ্যাপ্লিকেশনগুলো স্ক্রিনে প্রদর্শিত বিষয়বস্তু দেখা যায়, কম্পিউটার, স্মার্টফোন বা ট্যাবলেট ইত্যাদি যাই ব্যবহার করুক না কেন। এই অ্যাপ্লিকেশনগুলো প্রাথমিকভাবে দূরবর্তী সহায়তা প্রদানের জন্য ডিজাইন করা হয়েছে প্রযুক্তিগত সমস্যাগুলো সমাধানের লক্ষে। কিন্তু প্রতারক চক্র তার অপব্যবহার শুরু করে। যারা স্ক্রিন শেয়ার, অ্যানিডেস্ক এবং টিমভিউয়ারের মতো স্ক্রিন শেয়ারিং প্ল্যাটফর্মে তাদের ডিভাইসের সম্পূর্ণ অ্যাক্সেস এবং নিয়ন্ত্রণ মঞ্জুর করেন, তাদের জন্য হুমকির সম্ভাবনা রয়েছে। এর ফলে ডাটা চুরি এবং টাকা লোপাট হতে পারে।
স্ক্রিন শেয়ারিং অ্যাপ এড়ানোর প্রধান কারণ: লেনদেনের নিরাপত্তার জন্য অবশ্যই গুগল প্লের সঙ্গে স্ক্রিন-শেয়ারিং অ্যাপ এড়িয়ে যেতে হবে। প্রতারকরা অর্থ ও ডাটা চুরি করতে থার্ড-পার্টি প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করে অপব্যবহার করতে পারে। এই অ্যাপগুলো যখন স্ক্যামারদের দ্বারা হ্যাক হয়, তখন নিজেদের ডিভাইসগুলোতে অননুমোদিত অ্যাক্সেস পেতে পারে এবং ফলস্বরূপ নিজেদের পক্ষ থেকে লেনদেন শুরু করতে পারে। স্ক্যামাররা বেআইনিভাবে ইউজারের এটিএম বা ডেবিট কার্ডের বিবরণ অ্যাক্সেস করতে সক্ষম হবে। তারা ওয়ান-টাইম পাসওয়ার্ড (ওটিপি) অ্যাক্সেস পেতে পারে যা নিজেদের ডিভাইসে পাঠানো হবে।
গুগল প্লে সুরক্ষিত রাখার উপায়: ব্যবহারকারীদের অবশ্যই নিরাপদ লেনদেনের জন্য গুগলের সতর্কতামূলক পরামর্শ কঠোরভাবে মেনে চলতে হবে। স্ক্রিন-শেয়ারিং অ্যাপগুলো কারো অনুরোধে কখনো ডাউনলোড বা ইনস্টল করবেন না। যদি ভুল করে স্ক্রিন-শেয়ারিং প্ল্যাটফর্ম বা অ্যাপ ডাউনলোড করেন, তাহলে গুগল প্লে প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করার আগে এই অ্যাপগুলো (এমনকি ডিভাইসের ব্যাকগ্রাউন্ড থেকেও) বন্ধ করতে হবে। গুগল প্লের প্রতিনিধিরা নিরাপত্তার কারণে এই ধরনের স্ক্রিন-শেয়ারিং অ্যাপ দ্রুত আনইনস্টল করার পরামর্শ দিয়েছে। সেইসঙ্গে গুগল প্লেতে এই ধরনের ঘটনার রিপোর্ট করার জন্য বলা হয়েছে।

 

যোগাযোগ

সম্পাদক : ডা. মোঃ আহসানুল কবির, প্রকাশক : শেখ তানভীর আহমেদ কর্তৃক ন্যাশনাল প্রিন্টিং প্রেস, ১৬৭ ইনার সার্কুলার লার রোড, মতিঝিল থেকে মুদ্রিত ও ৫৬ এ এইচ টাওয়ার (৯ম তলা), রোড নং-২, সেক্টর নং-৩, উত্তরা মডেল টাউন, ঢাকা-১২৩০ থেকে প্রকাশিত। ফোন-৪৮৯৫৬৯৩০, ৪৮৯৫৬৯৩১, ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৭৯১৪৩০৮, ই-মেইল : [email protected]
আপলোডকারীর তথ্য

গুগল প্লেতে বন্ধ হচ্ছে সন্দেহজনক লেনদেন

আপডেট সময় : ১২:০৩:৫৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ৪ ডিসেম্বর ২০২৩

প্রযুক্তি ডেস্ক : জনপ্রিয় ইউপিআই পেমেন্ট প্ল্যাটফর্মগুলোর মধ্যে অন্যতম গুগল প্লে। যার মাধ্যমে অনলাইন মানি ট্রান্সফার এবং রিসিভিং প্ল্যাটফর্ম, যা আর্টিফিসিয়াল ইন্টেলিজেন্সের শক্তিকে কাজে লাগিয়ে সবাইকে ডিজিটাল পেমেন্ট করা যায়।
গুগল প্লে নিরাপদ পেমেন্টের জন্য একটি উন্নত জালিয়াতি প্রতিরোধ প্রযুক্তি যুক্ত করেছে। এই সিস্টেম সন্দেহজনক লেনদেনের রিয়েল-টাইম স্বীকৃতিসহ ব্যবহারকারীদের সুরক্ষিত করতে সহায়তা করে। নিরাপত্তা ব্যবস্থা বিকাশের জন্য অন্যান্য শিল্প অংশীদারদের সাথে সহযোগিতা করবে। ব্যবহারকারীর নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য গুগল ভূমিকা পালন করলেও ব্যবহারকারীদের সতর্ক থাকতে হবে। গুগল প্লে ব্যবহারকারীদের সুরক্ষিত রাখতে টেক জায়ান্ট সতর্কতার রূপরেখা তৈরি করেছে যা অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হয়েছে। সমালোচনামূলক নির্দেশিকাগুলোর পাশাপাশি, স্ট্যান্ডআউট পরামর্শে বলা হয়েছে যে, ব্যবহারকারীদের তাদের হ্যান্ডসেটে কোনো স্ক্রিন-শেয়ারিং অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করা উচিত নয়, যাতে তারা গুগল প্লেতে তাদের লেনদেন আরো সুরক্ষিত করতে পারেন।
স্ক্রিন শেয়ারিং অ্যাপ্লিকেশন: স্ক্রিন-শেয়ারিং অ্যাপ্লিকেশনগুলো স্ক্রিনে প্রদর্শিত বিষয়বস্তু দেখা যায়, কম্পিউটার, স্মার্টফোন বা ট্যাবলেট ইত্যাদি যাই ব্যবহার করুক না কেন। এই অ্যাপ্লিকেশনগুলো প্রাথমিকভাবে দূরবর্তী সহায়তা প্রদানের জন্য ডিজাইন করা হয়েছে প্রযুক্তিগত সমস্যাগুলো সমাধানের লক্ষে। কিন্তু প্রতারক চক্র তার অপব্যবহার শুরু করে। যারা স্ক্রিন শেয়ার, অ্যানিডেস্ক এবং টিমভিউয়ারের মতো স্ক্রিন শেয়ারিং প্ল্যাটফর্মে তাদের ডিভাইসের সম্পূর্ণ অ্যাক্সেস এবং নিয়ন্ত্রণ মঞ্জুর করেন, তাদের জন্য হুমকির সম্ভাবনা রয়েছে। এর ফলে ডাটা চুরি এবং টাকা লোপাট হতে পারে।
স্ক্রিন শেয়ারিং অ্যাপ এড়ানোর প্রধান কারণ: লেনদেনের নিরাপত্তার জন্য অবশ্যই গুগল প্লের সঙ্গে স্ক্রিন-শেয়ারিং অ্যাপ এড়িয়ে যেতে হবে। প্রতারকরা অর্থ ও ডাটা চুরি করতে থার্ড-পার্টি প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করে অপব্যবহার করতে পারে। এই অ্যাপগুলো যখন স্ক্যামারদের দ্বারা হ্যাক হয়, তখন নিজেদের ডিভাইসগুলোতে অননুমোদিত অ্যাক্সেস পেতে পারে এবং ফলস্বরূপ নিজেদের পক্ষ থেকে লেনদেন শুরু করতে পারে। স্ক্যামাররা বেআইনিভাবে ইউজারের এটিএম বা ডেবিট কার্ডের বিবরণ অ্যাক্সেস করতে সক্ষম হবে। তারা ওয়ান-টাইম পাসওয়ার্ড (ওটিপি) অ্যাক্সেস পেতে পারে যা নিজেদের ডিভাইসে পাঠানো হবে।
গুগল প্লে সুরক্ষিত রাখার উপায়: ব্যবহারকারীদের অবশ্যই নিরাপদ লেনদেনের জন্য গুগলের সতর্কতামূলক পরামর্শ কঠোরভাবে মেনে চলতে হবে। স্ক্রিন-শেয়ারিং অ্যাপগুলো কারো অনুরোধে কখনো ডাউনলোড বা ইনস্টল করবেন না। যদি ভুল করে স্ক্রিন-শেয়ারিং প্ল্যাটফর্ম বা অ্যাপ ডাউনলোড করেন, তাহলে গুগল প্লে প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করার আগে এই অ্যাপগুলো (এমনকি ডিভাইসের ব্যাকগ্রাউন্ড থেকেও) বন্ধ করতে হবে। গুগল প্লের প্রতিনিধিরা নিরাপত্তার কারণে এই ধরনের স্ক্রিন-শেয়ারিং অ্যাপ দ্রুত আনইনস্টল করার পরামর্শ দিয়েছে। সেইসঙ্গে গুগল প্লেতে এই ধরনের ঘটনার রিপোর্ট করার জন্য বলা হয়েছে।