The Daily Ajker Prottasha

একঘেয়েমি কাটাতে জুম অ্যাপে নতুন ফিচার

0 0
Read Time:4 Minute, 5 Second

প্রযুক্তি ডেস্ক : করোনাকালীন সময়ে ওয়ার্ক ফ্রম হোম ছিল একমাত্র ভরসা। সবকিছু থমকে গেলেও লকডাউনে ঘরে বসেই অফিস, মিটিং সব সেরে নেওয়া গেছে। অনলাইন মিটিংয়ের সবচেয়ে জনপ্রিয় অ্যাপ ছিল জুম।
২০১১ সালে উদ্যোক্তা ও ব্যবসায়িক ক্রেতাদের জন্য তৈরি হয়েছিল এই অ্যাপ। তবে খুব কম মানুষই ব্যবহার করেছেন এই অ্যাপ। করোনার সময় অনলাইন ক্লাস শুরু হওয়ার পরই বিশ্বে পরিচিত হলো জুম অ্যাপ। সেই সঙ্গে এর প্রতিষ্ঠাতা এরিক ইউয়ান।
বর্তমানে বিশ্বের প্রায় সব দেশেই অনলাইন মিটিংয়ের জন্য ব্যবহার হচ্ছে জুম। স্কুল, কলেজ থেকে শুরু করে অফিস কিংবা ব্যবসায়িক আলোচনা দূর দুরান্ত থেকে একমাত্র ভরসা এই অ্যাপ। এ কারণেই প্রতিনিয়ৎ ব্যবহারকারীদের জন্য ঢেলে সজানো হচ্ছে জুম।
ব্যবহারকারীদের মিটিংয়ের একঘেয়েমি কাটাতে সম্প্রতি যুক্ত হয়েছে একাধিক নতুন ফিচার। এছাড়াও কিছুদিন আগে মিটিংয়ে থেকে ব্যাকগ্রাউন্ড পরিবর্তনের সুবিধা এনেছে অ্যাপটি। অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা এড়াতে কল এন্ডে এনেছে নতুন সুবিধা। চলুন দেখে নেওয়া যাক অ্যাপের নতুন ফিচারগুলো-
মাইরো
এটি একটি অনলাইন হোয়াইট বোর্ড। এর মাধ্যমে জুম কলের প্রতিটি অংশগ্রহণকারীদের কোলাবোরেটিভ ওয়ার্কস্পেস দেওয়া হয়। এর উদ্দেশ্য হলো প্রতিটি অংশগ্রহণকারী যেন সেই কলে অংশগ্রহণ করতে পারেন, কোক্রিয়েট করতে পারেন এবং রিয়েল টাইম আইডিয়া ক্যাপচার করতে পারেন। এছাড়াও এই ফিচারের মাধ্যমে বিভিন্ন ধরনের টুলসের সাহায্য পাওয়া যাবে।
কোড অ্যাপ ফর জুম
এই ফিচারের মাধ্যমে জুম কলের প্রতিটি অংশগ্রহণকারীদের বলার সুযোগ করে দেওয়া হবে। এজন্য তাদের আলাদা করে আর কোনো ট্যাব ওপেন করতে হবে না। এছাড়াও এই ফিচারের মাধ্যমে নিয়ে আসা হয়েছে একটি নতুন কোড #ধংশযিু। এর মাধ্যমে প্রতিটি অংশগ্রহণকারী একে অপরের সম্পর্কে কিছু জানলে তা বাকিদের জানাতে পারবেন।
জুম ব্যাকগ্রাউন্ড রুমস
এটি জুমের একটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ ফিচার। এর মাধ্যমে জুম কলের অংশগ্রহণকারীরা ছোট ছোট গ্রুপে বিভক্ত হয়ে গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা করতে পারবেন।
জুম ওয়েলো
এই ফিচারের মাধ্যমে রিক্রিয়েট করা হয়েছে কোলাবোরেটিভ স্পেস। এর মাধ্যমে জুম কলের প্রতিটি অংশগ্রহণকারী একে অপরকে দেখতে পাবেন এবং সেই কথাবার্তার মধ্যেই মিটিং থেকে বেরিয়ে যেতে পারবেন প্রয়োজন মতো।
টুইন ফর জুম
এটি জুমের অল ইন ওয়ান রুম ম্যানেজমেন্ট ফিচার। এটির মাধ্যমে যে কোনো মিটিংয়ের হোস্ট ক্রিয়েট করতে পারেন রুম বেসড মিটিং। এর মাধ্যমে অন কাস্টম রুলস, রোটেট বিটুইন টাইমড, ব্যাক টু ব্যাক ব্রেকআউট, চ্যাট অ্যাক্রস রুম ইত্যাদির সুবিধা পেতে পারেন ব্যবহারকারী।

Happy
Happy
0 %
Sad
Sad
0 %
Excited
Excited
0 %
Sleepy
Sleepy
0 %
Angry
Angry
0 %
Surprise
Surprise
0 %

Average Rating

5 Star
0%
4 Star
0%
3 Star
0%
2 Star
0%
1 Star
0%

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *