বুধ. ফেব্রু ২০, ২০১৯

১০ বছর অবৈধ ব্যবহারের পর সরকারি গাড়ি উদ্ধার

১০ বছর অবৈধ ব্যবহারের পর সরকারি গাড়ি উদ্ধার

Last Updated on

নিজস্ব প্রতিবেদক : বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের (পিডিবি) অবসরপ্রাপ্ত তৃতীয় শ্রেণির এক কর্মচারীর দখল থেকে ১০ বছর ধরে অবৈধভাবে ব্যবহৃত সরকারি একটি পাজেরো গাড়ি উদ্ধার করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।
গতকাল সোমবার রাজধানীর মতিঝিল এলাকা থেকে দুদকের একটি অভিযান দল গাড়িটি উদ্ধার করে বলে দুদকের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন। ওই কর্মচারী মো. আলাউদ্দিন মিয়া পিডিবি’র সিবিএর সাধারণ সম্পাদক ছিলেন বলে জানিয়েছেন দুদকের মহাপরিচালক মোহাম্মদ মুনীর চৌধুরী।
আলাউদ্দিন সর্বশেষ পিডিবির নকশা ও পরিদর্শন পরিদপ্তরের স্টেনো টাইপিস্ট পদ থেকে ২০১৭ সালের আগস্টে অবসরে যান।
দুদক প্রধান কার্যালয়ে মুনীর চৌধুরী সাংবাদিকদের বলেন, “একটি অভিযোগের ভিত্তিতে ওই গাড়িটি উদ্ধার করা হয়। গাড়ি উদ্ধারের সময় এর চালক ছাড়া আর কেউ ছিলেন না। চালকের বক্তব্য রেকর্ড করে তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়। গাড়িটি পিডিবিকে বুঝিয়ে দেওয়া হবে।” তিনি বলেন, “গাড়িটি পিডিবির নামে বরাদ্দ থাকলেও ওই কর্মচারী কোনোভাবেই ব্যবহার করতে পারেন না। তারপরও গত ১০ বছর ধরে তিনি গাড়িটি ব্যবহার করে আসছেন।”
আলাউদ্দীন ২০০৯ সাল থেকে গাড়িটি ব্যবহার করছেন জানিয়ে মুনীর চৌধুরী বলেন, “গাড়িটির পেছনে প্রতিমাসে ৪৫০ লিটার তেল ব্যবহার হয়েছে; নয় বছরে তেল বাবদ ৩৫ লাখ টাকার বেশি অর্থ ব্যয় হয়েছে। এছাড়া এই সময়ে ৩৭ লাখ টাকা গাড়ির চালকের বেতন বাবদ ব্যয় হয়েছে। এসব অর্থ সরকারের কোষাগার থেকে গেছে, যাতে সরকারের ক্ষতি হয়েছে।”
দুদকের আওতাভুক্ত এটি একটি ‘বড় অপরাধ’ হিসেবে মন্তব্য করে তিনি বলেন, “তৃতীয় শ্রেণীর একজন কর্মচারীর নামে গাড়িটি কীভাবে বরাদ্দ দেওয়া হল, এর সাথে পিডিবি বা অন্য কোনো অফিসের যারা জড়িত তা অনুসন্ধানের মাধ্যমে বেরিয়ে আসবে। তখন সেই অনুসন্ধানের ভিত্তিতে জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।”
এ ঘটনায় মামলার ইঙ্গিত দিয়ে দুদকের এই মহাপরিচালক বলেন, “আমরা অনুসন্ধান করবো, ওই কর্মচারীর সম্পদও খতিয়ে দেখা হবে।” এক প্রশ্নের জবাবে মুনীর চৌধুরী বলেন, অভিযোগ পেলে সরকারি পরিবহন পুলের অন্য কোনো গাড়ির এরকম অপব্যবহার হচ্ছে কি না, তাও খতিয়ে দেখবেন তারা।

Please follow and like us:
0