শুক্র. জানু ১৮, ২০১৯

সূচকে মিশ্রভাব, কমেছে লেনদেন

সূচকে মিশ্রভাব, কমেছে লেনদেন

Last Updated on

অর্থনৈতিক প্রতিবেদক : সপ্তাহের শেষ কার্যদিবস গতকাল বৃহস্পতিবার দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান মূল্য সূচক ডিএসইএক্স বাড়লেও কমেছে অপর দুটি মূল্য সূচক। তবে অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সবকটি মূল্য সূচকের পতন হয়েছে।
দুই বাজারেই লেনদেন হওয়া বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম কমেছে। সেই সঙ্গে কমেছে লেনদেনের পরিমাণ। ডিএসইতে লেনদেনে অংশ নেয়া ১৪৮টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম আগের দিনের তুলনায় বেড়েছে। বিপরীতে দাম কমার তালিকায় স্থান করে নিয়েছে ১৭৩টি। আর ২৫টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।

বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম কমায় ডিএসইর প্রধান মূল্য সূচক ডিএসইএক্স আগের দিনের তুলনায় ১ পয়েন্ট কমে ৫ হাজার ৭৯৭ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। তবে অপর দুটি মূল্য সূচকের মধ্যে ডিএসই শরিয়াহ্ সূচক আগের দিনের তুলনায় ২ পয়েন্ট বেড়ে ১ হাজার ৩১৮ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। আর ডিএসই-৩০ আগের দিনের তুলনায় দশমিক ৬২ পয়েন্ট বেড়ে ২ হাজার ১১ পয়েন্টে অবস্থান করছে।

দিনভর ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৮৯৭ কোটি ৫৭ লাখ টাকা। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয় ১ হাজার ২৫ কোটি ৭৩ লাখ টাকা। সে হিসেবে আগের কার্যদিবসের তুলনায় লেনদেন কমেছে ১২৮ কোটি ১৬ লাখ টাকা।

টাকার অঙ্কে এদিন ডিএসইতে সব থেকে বেশি লেনদেন হয়েছে জেএমআই সিরিঞ্জের শেয়ার। কোম্পানিটির ২৬ কোটি ৯১ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। লেনদেনে দ্বিতীয় স্থানে থাকা বিবিএস কেবলসের ২৬ কোটি ৪৩ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। ১৮ কোটি ৮১ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেনে তৃতীয় স্থানে রয়েছে অলেম্পিক।

লেনদেনে এরপর রয়েছে- শেফার্ড ইন্ডাস্ট্রিজ, প্যারামাউন্ট টেক্সটাইল, অ্যাকটিভ ফাইন, শাহাজিবাজার পাওয়ার, ব্র্যাক ব্যাংক, নাহি অ্যালুমিনিয়াম এবং সিঙ্গার বিডি।

অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের সার্বিক মূল্য সূচক সিএসসিএক্স ৮ পয়েন্ট কমে ১০ হাজার ৭২৬ পয়েন্টে অবস্থান করছে। বাজারটিতে লেনদেন হয়েছে ৩৩ কোটি ২ লাখ টাকা। লেনদেন হওয়া ২৬৪টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ১০৭টির দাম বেড়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ১৪০টির। আর দাম অপরিবর্তিত রয়েছে ১৭টির।

Please follow and like us:
2