সিলেট-খাগড়াছড়িতে গণধর্ষণের তীব্র নিন্দায় মানবাধিকার কমিশন

নিজস্ব প্রতিবেদক : সিলেটের এমসি কলেজে তরুণীকে এবং খাগড়াছড়িতে বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী তরুণীকে গণধর্ষণের ঘটনায় তীব্র নিন্দা প্রকাশ করেছেন জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান নাছিমা বেগম এনডিসি। গতকাল শনিবার কমিশনের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, সিলেট মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনারের বরাত দিয়ে গণমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদ থেকে জানা যায় যে, গত শুক্রবার ওই তরুণী তার স্বামীর সঙ্গে এমসি কলেজে ঘুরতে গেলে ৬/৭ জন যুবক তরুণীকে জোরপূর্বক তুলে নিয়ে এমসি কলেজ ছাত্রাবাস এলাকায় গণধর্ষণ করে। এ সময় তার স্বামী প্রতিবাদ করলে তাকে মারধর করে আটকে রাখা হয়। আসামিদের কেউ এখনো গ্রেফতার হয়নি। অন্যদিকে খাগড়াছড়িতে ধর্ষণের শিকার তরুণীর মায়ের বরাত দিয়ে গণমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদ থেকে জানা যায় যে, বুধবার রাতে নয়জন ডাকাত ঘরে ঢুকে তার বুদ্ধি প্রতিবন্ধী মেয়েকে অস্ত্রের মুখে ধর্ষণ করে এবং ঘরের জিনিসপত্র লুটপাট করে। ঘটনার সাথে জড়িত আসামিদের মধ্যে ইতোমধ্যে সাতজন গ্রেফতার হয়েছে। বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, কমিশনের চেয়ারম্যান মনে করেন, একের পর এক নারীর প্রতি নির্যাতন ও ধর্ষণের ঘটনা অত্যন্ত জঘন্য ও ঘৃণ্যতম ঘটনা, যা কোনভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়। নারীর মানবাধিকার সুরক্ষিত করার লক্ষ্যে ধর্ষণের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি বাস্তবায়ন করা আবশ্যক। ধর্ষক যেই হোক না কেন তাকে আইনের আওতায় এনে দ্রুত দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিতে হবে। সিলেটের ঘটনায় আসামিদের দ্রুত গ্রেফতার করে এবং খাগড়াছড়ির ঘটনায় গ্রেফতারকৃত আসামিদেরসহ সংশ্লিষ্ট অন্যান্যের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিত করার জন্য সংশ্লিষ্ট সবাইকে সহযোগিতার আহ্বান জানান নাছিমা বেগম।

Please follow and like us: