রবি. নভে ১৭, ২০১৯

সভাপতি বাছাই কমিটির বৈঠক থেকে বেরিয়ে গেলেন সোনিয়া ও রাহুল গান্ধী,

Last Updated on

কংগ্রেসের নতুন সভাপতি কে হচ্ছেন তা নিয়ে গত দুই মাস ধরে চলছে আলোচনা। এরই মধ্য আজ শনিবারের বৈঠকে সভাপতি নির্বাচনের প্রক্রিয়া থেকে নিজেদের সরিয়ে নিলেন সোনিয়া ও রাহুল গান্ধী। এদিকে কংগ্রেস সভাপতি হওয়ার দৌড়ে এগিয়ে আছেন সাবেক মন্ত্রী মুকুল ওয়াসনিক।
আজ শনিবার দিল্লিতে কংগ্রেসের পরবর্তী সভাপতি নির্বাচনের জন্য ওয়ার্কিং কমিটির বৈঠক বসেছিল। সেখানে নিজেদের বক্তব্য তুলে ধরে বৈঠক ছেড়ে চলে যান পদত্যাগী কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী ও কংগ্রেস সংসদীয় দলের নেত্রী সোনিয়া গান্ধী। সোনিয়া ও রাহুল বলেন, দলের প্রধান নির্বাচনের প্রক্রিয়ার বৈঠকে তাঁরা থাকবেন না। এরপরই বৈঠক ছেড়ে চলে যান মা ও ছেলে।
পরে কংগ্রেস মুখপাত্র রণদীপ সুরজেওয়ালা সাংবাদিকদের জানান, আজকের বৈঠকে দলের পরবর্তী সভাপতি নিয়ে কোনোও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়নি। তাই রাতে আবার বৈঠকে বসবে কংগ্রেস ওয়ার্কিং কমিটি।
সুরজেওয়ালা বলেন, বৈঠকে রাহুল গান্ধীর নেতৃত্বের ওপর আস্থা প্রকাশ করেন প্রত্যেক সদস্য। তাঁকে পদত্যাগ প্রত্যাহারের অনুরোধ জানান তাঁরা। কেন্দ্রীয় সরকার যেভাবে সংবিধান নিয়ে খেলা করছে, তার বিরোধিতায় রাহুল গান্ধীর লড়াকু নেতৃত্ব প্রয়োজন। কিন্তু পদত্যাগের সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত বলে নিজ সিদ্ধান্তে অনড় থাকেন রাহুল। তিনি বলেন, প্রত্যেক কংগ্রেস কর্মীর সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে লড়াইয়ের ময়দানে থাকবেন তিনি।
এরপরই নতুন সভাপতি বাছতে কংগ্রেস ওয়ার্কিং কমিটিকে ৫টি ছোট কমিটি করা হয়। প্রত্যেক কমিটিকে দলের বিভিন্ন অংশের সঙ্গে কথা বলে রাত ৮টা নাগাদ প্রতিবেদন পেশ করতে বলা হয়েছে। রাতে আবার বৈঠকে বসবে কংগ্রেস ওয়ার্কিং কমিটি। রণদীপ সুরজেওয়ালা বলেন, অচলাবস্থা কাটাতে আজই পরবর্তী সভাপতি বেছে নিতে অনুরোধ করেছেন রাহুল গান্ধী। ফলে রাত ৮টার পর যে কোনো ঘোষণা হতে পারে পরবর্তী কংগ্রেস সভাপতির নাম।
এদিকে গুঞ্জন উঠেছে, কংগ্রেস সভাপতি হওয়ার দৌড়ে এগিয়ে আছেন সাবেক মন্ত্রী মুকুল ওয়াসনিক। শনিবার কংগ্রেস ওয়ার্কিং কমিটির সভা হওয়ার পর গত দুই দশকে ইতিহাসে এই প্রথমবার গান্ধী পরিবারের বাইরের কেউ দলের সভাপতি হতে যাচ্ছেনÍএমন আলোচনা ছড়িয়ে পড়ে। প্রশাসনিক অভিজ্ঞতা থাকায় সাবেকমন্ত্রী মুকুল ওয়াসনিককে কংগ্রেস প্রধানের দায়িত্ব দেওয়ার কথা শোনা গিয়েছিল আগেই। দলের আগামী সাংগঠনিক নির্বাচনের আগ পর্যন্ত তিনি ওই দায়িত্ব পালন করবেন।
ভারতের প্রাচীনতম রাজনৈতিক দলটির বেশির ভাগ সভাপতি নেহরু-গান্ধী পরিবারের সদস্য ছিলেন। ১৫৯ বছরের দলটিতে এখন গান্ধী পরিবারের সোনিয়া, রাহুল ও প্রিয়াঙ্কা সক্রিয় রাজনীতিতে আছেন। তবে তারা কেউই সভাপতি হতে রাজি নন।
দুই মাসেরও বেশি সময় ধরে কংগ্রেসের সভাপতি নির্বাচন নিয়ে জটিলতা চলছে। একদিকে দলের নেতারা রাহুল গান্ধীর সিদ্ধান্ত পরিবর্তনের চেষ্টা করছিল এবং অন্যদিকে নতুন নেতা নির্বাচনের বিষয়টিও নজরে রাখছিল। অবশেষে হয়তো সব জটিলতার অবসান আজ হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।

Please follow and like us:
3