শাকিল, রোমানের হতাশার দিন

হতাশার দিন

ক্রীড়া প্রতিবেদক : আব্দুল্লাহ হেল বাকির মতো ব্যর্থতার বৃত্তে থাকলেন আরেক শুটার শাকিল আহমেদ। গোল্ডকোস্ট কমনওয়েলথ গেমসে রুপা জেতা এই শুটার বঙ্গবন্ধু ৯ম বাংলাদেশ গেমসের ১০ মিটার এয়ার পিস্তলে ব্রোঞ্জ পেয়েছেন। হতাশ করেছেন রোমান সানাও। রিকার্ভ পুরুষ এককের শেষ ষোলো থেকে ছিটকে গেছেন গত এসএ গেমসে হ্যাটট্রিক সোনা জেতা এই আর্চার। তাদের হতাশার দিনে ১০ মিটার এয়ার পিস্তলে সোনা জিতেছেন তুরিং দেওয়ান। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে হওয়া বাংলাদেশ গেমসে রোববার চতুর্থ দিনে শেষ হয়েছে খো খো, জিমন্যাস্টিকস, বডি বিল্ডিং, কুস্তি, রাগবি, অ্যাথলেটিক্স, ফেন্সিং ডিসিপ্লিন।
শুটিং : গুলশান শুটিং কমপ্লেক্সে ১০ মিটার এয়ার পিস্তল মহিলা জুনিয়র ইভেন্টে নেভী শুটিং ক্লাবের তুরিং ৫৪৮ স্কোর করে সোনা জিতেছেন। ১০ মিটার এয়ার পিস্তল মহিলা সিনিয়র বিভাগে আর্মি শুটিং এসোসিয়েশনের আনজিলা আমজাদ সেরা হয়েছেন ৫৬৯ স্কোর করে।
বাংলাদেশ ক্রীড়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে (বিকেএসপি) স্কিট ইভেন্টে চট্টগ্রাম রাইফেল ক্লাবের নুরউদ্দিন সেলিম ১০০ স্কোর করে প্রথম হন। ১০ মিটার এয়ার রাইফেল মহিলা বিভাগে আর্মি শুটিং এসোসিয়েশনের নাফিসা তাবাসসুম ৬২৫.৫ স্কোর নিয়ে সেরা হয়েছেন।
১০ মিটার এয়ার পিস্তলে আর্মি শুটিং এসোসিয়েশনের সাব্বির আলম (৫৬৩ স্কোর) সেরা হয়েছেন। হতাশ করেছেন গোল্ডকোস্ট কমনওয়েল গেমসে রুপা জেতা শাকিল। ৫৫৮ স্কোর নিয়ে রুপা পেয়েছেন আর্মি শুটিং এসোসিয়েশনের এই শুটার। ১০ মিটার এয়ার পিস্তল পুরুষ জুনিয়র বিভাগে সেরা হয়েছেন আর্মি শুটিং এসোসিয়েশনের নাসির উদ্দিন ফাহিম (৫৫০ স্কোর)।
আর্চারি : টঙ্গীর আহসান উল্লাহ মাস্টার স্টেডিয়ামে ছেলেদের রিকার্ভ এককের প্রি-কোয়ার্টার ফাইনালে বাংলাদেশ আনসারের রোমান ১-৭ সেটে ঢাকা আর্মি আর্চারি ক্লাবের জুয়েল খানের কাছে হেরে ছিটকে গেছেন। ২০১৯ কাঠমান্ডু এসএ গেমসে সোনা জেতার পর গত বছর রোমান প্রথম ঘরোয়া টুর্নামেন্টে অংশ নেন বিজয় দিবস টুর্নামেন্টে। সেখানে সেমি-ফাইনালে হেরেছিলেন। এরপর গত মার্চে কক্সবাজারে জাতীয় চ্যাম্পিয়নশিপে সোনার পদক হাতছাড়া হয় রোমানের। ব্রোঞ্জ জিতেই সন্তুষ্ট থাকতে হয় তাকে।
কম্পাউন্ডে পুরুষ এককের র‌্যাঙ্কিং রাউন্ডে জাতীয় রেকর্ড গড়েছেন বাংলাদেশ পুলিশের অসীম কুমার দাস। ৭০৪ স্কোর নিয়ে বিকেএসপির শেখ সজীবের গড়া আগের রেকর্ড (৭০০ স্কোর) ভেঙেছেন তিনি।
সাইক্লিং : বিশ্বাস ফয়সাল হোসেন ১ হাজার মিটার স্প্রিন্টে ১৩ দশমিক ৬০ সেকেন্ড সময় নিয়ে নতুন রেকর্ড গড়ে সোনা জিতেছেন। বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর এই সাইক্লিস্ট ভেঙেছেন ২০১৩ সালের গেমসে আনসারের তরিকুল ইসলামের গড়া ১৫.১০ সেকেন্ডের রেকর্ড। আগের দিন পুরুষদের ১০০০ মিটার টাইম ট্রায়াল ব্যক্তিগত ইভেন্টে (১ মিনিট ২০.৪০ সেকেন্ড) নতুন রেকর্ড গড়েছিলেন ফয়সাল। পুরুষ ১২০০ মিটার দলীয় অলিম্পিক স্প্রিন্টে ১ মিনিট ৩৬.২২ সেকেন্ডে সতীর্থ আলমগীর হোসেন ও মুক্তাদুর আল হাসানের সঙ্গে রেকর্ড গড়ে সোনা জিতেছিলেন তিনি।
গেমসে দ্বিতীয় রেকর্ডের দেখা পেয়েছেন সেনাবাহিনীর শিল্পী খাতুন। আগের দিন ৮০০ মিটার অলিম্পিক স্প্রিন্টে ব্যক্তিগত ইভেন্টে ১ মিনিট ১১.১৩ সেকেন্ডে নতুন রেকর্ড গড়া এই সাইক্লিস্ট রোববার ১০০০ মিটার স্প্রিন্টে ১৫.৯৪ সেকেন্ড সময় নিয়ে রেকর্ড গড়েছেন। ভেঙেছেন ২০১৯ সালে অভির করা ১৬.২৬ সেকেন্ডের রেকর্ড।
হ্যান্ডবল : শহীদ (ক্যাপ্টেন) এম মনসুর মলসুর আলী জাতীয় হ্যান্ডবল স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ আনসারকে ৩৬-২৬ গোলে হারিয়ে পুরুষ হ্যান্ডবলে সেরা হয় বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)। প্রথমার্ধে শেষে ১৭-১৩ গোলে এগিয়ে ছিল তারা।
খো খো : খো খো ডিসিপ্লিনের পুরুষ ও নারী দুই বিভাগেই চ্যাম্পিয়ন হয়েছে বাংলাদেশ আনসার ও ভিডিপি। পল্টনের আউটার স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত পুরুষ বিভাগের ফাইনালে আনসার ১৬-৪ পয়েন্টে চট্টগ্রাম জেলাকে হারিয়ে শিরোপা জেতে। অন্যদিকে নারী বিভাগে আনসার ১৬-১ পয়েন্টে সাতক্ষিরা জেলাকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়।
টিটি : শহীদ তাজউদ্দিন আহমেদ ইনডোর স্টেডিয়ামে মহিলা দ্বৈত বিভাগে শিরোপা জিতেছে বাংলাদেশ আনসার। সোনাম সুলতানা সোমা ও সাদিয়া রহমান মৌয়ের সমন্বয়ে আনসারের জুটি ৩-২ ব্যবধানে হারায় বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর রাহিমা আক্তার ও নওরিন সুলতানা মাহির জুটিকে।
জিমন্যাস্টিকস : জিমন্যাস্টিকসের শেষ দিনে চতুর্থ সোনা জিতেছেন নূর আক্তার বানু। জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ জিমন্যাশিয়ামে মেয়েদের ফ্লোর এক্সারসাইজ ইভেন্টে ১০.২৫ স্কোর করে সোনা জিতেছেন বাংলাদেশ আনসারের এই অ্যাথলেট। এর আগে মেয়েদের ব্যক্তিগত ব্যালেন্স বীমা, অল-অ্যারাউন্ড ও দলগত আর্টিস্টিকস ইভেন্টে সোনা জিতেন নূর আক্তার বানু।
ছেলেদের ফ্লোর এক্সারসাইজ ইভেন্টে ১১.৯০ স্কোর করে প্রথম হয়েছেন সাজিদ হক। ৫টি স্বর্ণ, ৩টি রৌপ্য, এবং ৭টি ব্রোঞ্জসহ মোট ১৫টি পদক নিয়ে এই ডিসিপ্লিনে দলগত সেরা হয়েছে বাংলাদেশ আনসার।
বডি বিল্ডিং : আনসারের আধিপত্যের মধ্যে দিয়ে শেষ হলো বডি বিল্ডিং ইভেন্টের পদক লড়াই। তৃতীয় ও শেষ দিনে পাঁচটি স্বর্ণ পদকের চারটি জিতে নিয়েছে আনসার। মোট ১৫টি স্বর্ণ পদকের মধ্যে ১১টি জিতেছে তারা।
কুস্তি : ৫টি সোনা,২টি করে রুপা ও ব্রোঞ্জ নিয়ে কুস্তি ডিসিপ্লিনে পুরুষ বিভাগে সেরা বাংলাদেশ আনসার। ৪টি সোনা,২টি রুপা ও ৩টি ব্রোঞ্জ নিয়ে রানার্সআপ বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)। বাংলাদেশ পুলিশ তৃতীয় হয়েছে ১টি সোনা,২টি রুপা ও ৪টি ব্রোঞ্জ নিয়ে।

 

Please follow and like us: