বুধ. জুন ১৯, ২০১৯

যুদ্ধ এড়াতে চায় সৌদি, তবে সর্ব শক্তি দিয়ে জবাব দেয়ার হুমকি

যুদ্ধ এড়াতে চায় সৌদি, তবে সর্ব শক্তি

Last Updated on

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : মধ্যপ্রাচ্যের চলমান তীব্র উত্তেজনার মাঝে সৌদি আরব যুদ্ধ এড়াতে চায়। তবে তারা সর্ব শক্তি দিয়ে যেকোনো ধরনের জবাব দেয়ার জন্য প্রস্তুত আছে। গত সপ্তাহে সংযুক্ত আরব আমিরাতের ফুজাইরাহ বন্দরে সৌদি আরবের দুটি তেল ট্যাঙ্কার আক্রান্ত হওয়ার পর গতকাল রোববার রিয়াদ এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানিয়েছে। যুদ্ধ এড়ানোর স্বীকারোক্তি দিয়ে বিবৃতিতে বলা হয়েছে, বল এখন ইরানের কোর্টে।
তেল ট্যাঙ্কার আক্রান্ত হওয়ার পর গত মঙ্গলবার সৌদি আরবের আরো দুটি তেল স্থাপনায় সশস্ত্র ডোন হামলা হয়। ইয়েমেনের বিদ্রোহী গোষ্ঠী হুথি হামলার দায় স্বীকার করলেও রিয়াদ এই হামলার জন্য তেহরানকে দায়ী করেছে। এ ঘটনার দু’দিন আহে আমিরাতের ফুজাইরাহ বন্দরে সৌদি আরবের দু’টি-সহ চারটি তেল ট্যাঙ্কারে অন্তর্ঘাতমূলক হামলা হয়। তেহরানের বিরুদ্ধে ওয়াশিংটনের আরোপিত নিষেধাজ্ঞা নিয়ে তীব্র উত্তেজনার মাঝে এই হামলায় সংশ্লিষ্টতার অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছে ইরান। মধ্যপ্রাচ্যে মার্কিন সামরিক বাহিনী, যুদ্ধজাহাজের উপস্থিতি বাড়ানো হয়েছে। এ নিয়ে এই অঞ্চলে ইরান-যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে সংঘাতের আশঙ্কা তৈরি হয়েছে। গতকাল রোববার এক সংবাদ সম্মেলনে সৌদি আরবের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী আদেল আল-জুবায়ের বলেছেন, ‘সৌদি আরব এই অঞ্চলে যুদ্ধ চায় না। এই যুদ্ধ এড়ানোর জন্য যা করা দরকার সৌদি আরব তাই করবে। একই সময়ে সৌদি আরব আশ্বস্ত করছে যে, প্রতিপক্ষ যদি যুদ্ধকে বেছে নেয়, তাহলে সর্ব শক্তি দিয়ে এর জবাব দিতে তারা দৃঢ় প্রতিজ্ঞ। এছাড়া দেশ এবং দেশের স্বার্থের সুরক্ষা নিশ্চিত করবে তারা।’ তেল ট্যাঙ্কারে হামলার পর সৃষ্ট জটিলতা নিয়ে আলোচনার জন্য রোববার সৌদি বাদশাহ সালমান বিন আব্দুল আজিজ আল সৌদ উপসাগরীয় ও আরব নেতাদের জরুরি বৈঠকে বসার আহ্বান জানিয়েছেন। আগামী ৩০ মে মক্কায় এই বৈঠকের ডাক দিয়েছেন তিনি। এদিকে এক বিবৃতিতে আরব আমিরাতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলছে, ‘বর্তমানে যে জটিল পরিস্থিতি ও ঝুঁকি তৈরি হয়েছে, তাতে আরব এবং উপসাগরীয় ঐক্য অত্যন্ত জরুরি।’
বাগদাদিকে হুমকি দেওয়ার অভিযোগ অস্বীকার : জ্যেষ্ঠ এক সৌদি কর্মকর্তা আজ রোববার বিশিষ্ট ফিলিস্তিনি মানবাধিকারকর্মী আইয়াদ আল-বাগদাদিকে হুমকি দেওয়ার অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। এর আগে বাগদাদি দাবি করেন, নরওয়ের নিরাপত্তা বাহিনী সৌদি আরবের পক্ষ থেকে হুমকির ব্যাপারে তাকে সতর্ক করেছে। সৌদি আরবের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আদেল আল-জুবায়ের বলেছেন, ‘আইয়াদ আল-বাগদাদি নামের কাউকে আমি চিনি না। তিনি হয়তো কোনো দেশে স্থায়ীভাবে ঘাঁটি গাড়তে এমন অভিযোগ তুলেছেন। কিন্তু আমাদের পক্ষ থেকে স্পষ্ট করে জানিয়ে দিচ্ছি, এমন কোনো ব্যক্তির ব্যাপারে কোনো তথ্য আমাদের হাতে নেই।’ ২০১১ সালে আরব বসন্তের সময় খ্যাতি লাভ করা বাগদাদি তার লেখায় সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের সমালোচনা করেছেন। ২০১৫ সাল থেকে তিনি অসলোতে রাজনৈতিক আশ্রয় নিয়েছেন। তার দাবি, ২৫ এপ্রিল নরওয়ের নিরাপত্তা বাহিনী তাকে একটি সুরক্ষিত জায়গায় সরিয়ে নেয়। তারাই বাগদাদিকে হুমকির ব্যাপারে সতর্ক করে। দুই বছর ধরে বাগদাদি তার কাজের মাধ্যমে সৌদি আরবে মানবাধিকার নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। গত অক্টোবরে সাংবাদিক জামাল খাসোগি হত্যার পর বিশ্বব্যাপী এ বিষয়টি আলোচিত হচ্ছে।

Please follow and like us:
2