সোম. ডিসে ৯, ২০১৯

মেসি জাদুতে আতলেতিকোর মাঠে বার্সার দুর্দান্ত জয়

মেসি জাদুতে আতলেতিকোর মাঠে বার্সার দুর্দান্ত জয়

Last Updated on

ক্রীড়া ডেস্ক : লা লিগার শিরোপাপ্রত্যাশী দুই দলের লড়াই উত্তেজনা ছড়াল ঢের। তবে মিলছিল না গোলের দেখা। আরও একবার দলের প্রয়োজনে স্বরূপে হাজির হলেন লিওনেল মেসি। অসাধারণ এক গোলে গড়ে দিলেন ব্যবধান। আতলেতিকো মাদ্রিদকে হারিয়ে লিগ টেবিলের শীর্ষে ফিরল বার্সেলোনা। ওয়ান্দা মেত্রোপলিতানোয় রোববার রাতে হাইভোল্টেজ ম্যাচটি ১-০ গোলে জিতেছে এরনেস্তো ভালভেরদের দল। লা লিগায় এই নিয়ে বার্সেলোনার বিপক্ষে টানা ১৯ ম্যাচে জয়শূন্য রইলো আতলেতিকো। রক্ষণের ভুলে ম্যাচের শুরুতেই গোল খেতে বসেছিল বার্সেলোনা। সপ্তম মিনিটে ডিফেন্ডাররা বল বিপদমুক্ত করতে ব্যর্থ হলে ডান দিক থেকে কোনাকুনি শট নেন মারিও এরমোসো। পা বাড়িয়ে দেন জুনিয়র ফিরপো। বল তার পায়ে লেগে গোলরক্ষককে ফাঁকি দিয়ে পোস্টে বাধা পেলে বেঁচে যায় শিরোপাধারীরা। উনবিংশ মিনিটে অসাধারণ ক্ষিপ্রতায় জাল অক্ষত রাখেন বার্সেলোনা গোলরক্ষক। ডান দিক থেকে এরমোসোর শট ঝাঁপিয়ে কোনোমতে পা দিয়ে ঠেকান মার্ক-আন্ড্রে টের স্টেগেন। প্রথম ২০ মিনিটে আক্রমণাত্মক ফুটবলে আতলেতিকো চাপ ধরে রাখার পর ধীরে ধীরে খেলায় ফিরতে থাকে বার্সেলোনা। তবে মেসি-সুয়ারেসরা বল পেলেই তাদেরকে দুই-তিন জন স্বাগতিক খেলোয়াড়ের ঘিরে ধরে বল দখলের নেওয়ার চেষ্টা ছিল দেখার মতো।
জমাট রক্ষণ ভেঙে ডি-বক্সে ঢুকতে পারছিল না বার্সেলোনা। ৩৬তম মিনিটে ডি-বক্সের বাইরে থেকে আচমকা বুলেট গতির শটে ভীতি ছড়ান ল্ইুস সুয়ারেস। পাঁচ মিনিট পর আবারও টের স্টেগেনের নৈপুণ্যে বেঁচে যায় চ্যাম্পিয়নরা। এ যাত্রায় অরক্ষিত আলভারো মোরাতার হেড রুখে দেন তিনি। দুর্ভাগ্য বাধ না সাধলে দুই মিনিট পর কাঙ্ক্ষিত গোল পেতে পারতো বার্সেলোনা। কিন্তু জেরার্দ পিকের হেডে বল এক ড্রপে ক্রসবারে বাধা পায়। দ্বিতীয়ার্ধের প্রথম ২০ মিনিটে উভয় পক্ষ একবার করে সুবর্ণ সুযোগ পেয়েছিল। কিন্তু গোলের দেখা মেলেনি। ৭২তম মিনিটে আরেকটি সুযোগ নষ্ট হয় আতলেতিকোর; গোলমুখ থেকে বল ফেরান সের্হিও রবের্তো। অবশেষে ৮৭তম মিনিটে কাঙ্ক্ষিত গোলের দেখা মেলে। নিজেদের সীমানা থেকে রবের্তোর বাড়ানো পাস ধরে ছুট দেন মেসি। কিছুটা আড়াআড়ি এগিয়ে সুয়ারেসকে বল বাড়িয়ে এগিয়ে যান বাঁ দিকে। এক টোকায় বলের দিক পাল্টে দেন সুয়ারেস। আর ডি-বক্সের কিনারা থেকে বাঁ পায়ের দুর্দান্ত শটে ঠিকানা খুঁজে নেন রেকর্ড ছয়বারের বর্ষসেরা ফুটবলার। উল্লাসে ফেটে পড়ে বার্সেলোনা। ১৪ ম্যাচে ১০ জয় ও এক ড্রয়ে বার্সেলোনার পয়েন্ট ৩১। সমান পয়েন্ট নিয়ে গোল ব্যবধানে পিছিয়ে দুইয়ে আছে রিয়াল মাদ্রিদ। ১৫ ম্যাচে ৩০ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় স্থানে আছে সেভিয়া। সমান ২৬ পয়েন্ট নিয়ে যথাক্রমে চার ও পাঁচে আছে রিয়াল সোসিয়েদাদ ও আথলেতিক বিলবাও। আসরে দ্বিতীয় হারের স্বাদ পাওয়া আতলেতিকো মাদ্রিদ ২৫ পয়েন্ট নিয়ে আছে ছয় নম্বরে।

Please follow and like us:
3