মুজিব শতবর্ষে আ.লীগকে আগাছা, পরগাছামুক্ত করা হবে: কাদের

মুজিব শতবর্ষে আ.লীগকে আগাছা, পরগাছামুক্ত করা হবে: কাদের

Last Updated on

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি : আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী মুজিব শতবর্ষে আওয়ামী লীগকে আগাছা, পরগাছামুক্ত করা হবে। কোনো হাইব্রিড, বসন্তের কোকিলরা আওয়ামী লীগের নেতা হতে পারবেন না। আওয়ামী লীগের দুর্দিনের ত্যাগীরাই নেতা হবেন।
গতকাল বুধবার বেলা পৌনে দুইটায় গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়ায় উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ওবায়দুল কাদের এসব কথা বলেন। কোটালীপাড়া উপজেলা পরিষদ চত্বরে এ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। দলীয় নেতা–কর্মীদের হুঁশিয়ার করে সেতুমন্ত্রী বলেন, কেউ ঘরের মধ্যে ঘর বানাবেন না। কমিটি করার সময় কেউ পকেট কমিটি করবেন না। ত্যাগী কর্মীদের মূল্যায়ন করতে হবে। ত্যাগীদের মূল্যায়ন না করলে দল ক্ষতিগ্রস্ত হবে। এ ছাড়া শুধু প্রবীণদের দিয়ে আওয়ামী লীগের কমিটি হবে না। নতুন ও প্রবীণদের নিয়ে কমিটি হবে। নতুনদের শক্তি আর প্রবীণদের মেধা দিয়ে দেশ পরিচালনা করতে হবে। ঢাকা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে অন্ধকারের পরাশক্তি পরাজিত হয়েছে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, কোনো অপশক্তিকে আর ক্ষমতায় আসতে দেওয়া হবে না। মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী যারা, তারাই বাংলাদেশ চালাবে। নেতা-কর্মীদের উদ্দেশে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘বিএনপিকে নিয়ে বিচলিত হবেন না। তারা নির্বাচনেও ফেল, আন্দোলনেও ফেল, শুধু নালিশে ফার্স্ট। এটা এখন নালিশ পার্টি। এরা দেশের মানুষের কাছে নালিশ করে না। বিদেশিদের কাছে নালিশ করে আমাদের দেশকে ছোট করছে।’ বিএনপির উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘এই বছর না, ওই বছর, বিএনপির আন্দোলন কোন বছর? বিএনপির আন্দোলনে মরা গাঙে (নদী) আর জোয়ার আসবে না। মির্জা ফখরুল আন্দোলন ও নির্বাচনে হেরে হতাশায় আবোল–তাবোল বকছে।’ সেতুমন্ত্রী বলেন, পদ্মা সেতুর ২৪টি স্প্যান বসেছে। আর বছরখানেক লাগবে। তখন ঢাকা থেকে টুঙ্গিপাড়ায় আসতে আড়াই ঘণ্টা সময় লাগবে। পরে দ্বিতীয় অধিবেশনে ভবেন্দ্রনাথ বিশ্বাসকে সভাপতি ও মো. আয়নাল হোসেন শেখকে সাধারণ সম্পাদক করে কোটালীপাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের নতুন কমিটি ঘোষণা করা হয়। সর্বশেষ ২০১৫ কোটালীপাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয় ।

Please follow and like us:
3
20
fb-share-icon20
Live Updates COVID-19 CASES