Published On: বৃহস্পতিবার ১৭ মে, ২০১৮

মালয়েশিয়ার নাজিব রাজাকের বাড়িতে পুলিশের তল্লাশি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : জাতীয় নির্বাচনে পরাজয়ের এক সপ্তাহ পর মালয়েশিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাকের বাড়িতে তল্লাশি চালিয়েছে পুলিশ। বুধবার রাত নামার পর নাজিবের বাড়ির সামনে পুলিশের অনেকগুলো গাড়ি দেখা গেছে বলে স্থানীয় গণমাধ্যমের বরাতে জানিয়েছে বিবিসি। এর আগে দেশটির নতুন প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ জানিয়েছিলেন, নাজিবের বিরুদ্ধে দুর্নীতির তদন্ত ফের শুরু করতে চান তিনি। তবে কোনো দুর্নীতি করার কথা অস্বীকার করেছেন নাজিব। গত শনিবার নাজিবের দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়। ওইদিন তিনি স্ত্রীসহ ছুটি কাটাতে দেশের বাইরে যাওয়ার উদ্যোগ নিয়েছিলেন। তার বাড়িতে তল্লাশি চালানোর কথা নিশ্চিত করেছে পুলিশ, তবে এর বাইরে তারা বিস্তারিত আর কিছু জানায়নি বলে নিউ স্ট্রেইটস্ টাইমস সংবাদপত্রের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।
পুলিশ, সাংবাদিক ও সাধারণ মানুষসহ শতাধিক লোক নাজিবের বাড়ির বাইরে জমায়েত হয়েছিলেন বলে বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে। এক প্রত্যক্ষদর্শী রয়টার্সকে জানিয়েছেন, নামাজ শেষে নাজিব মসজিদ থেকে ফেরার পর বেশ কয়েকজন পুলিশ কর্মকর্তা তার বাসায় প্রবেশ করেন। নিজের প্রতিষ্ঠিত একটি রাষ্ট্রীয় তহবিলের সঙ্গে সম্পর্কিত দুর্নীতির অভিযোগ থাকলেও দীর্ঘদিন ধরে তা অস্বীকার করে এসেছেন নাজিব। বিনিয়োগ তহবিল ওয়ান মালয়েশিয়া ডেভেলপমেন্ট বরহাদ (ওয়ানএমডিবি) থেকে ৭০ কোটি ডলার সরিয়ে নিয়েছেন, এমন অভিযোগে ২০১৫ সালে অভিযুক্ত হয়েছিলেন তিনি, কিন্তু কর্তৃপক্ষগুলো তাকে অভিযোগ থেকে মুক্তি দেয়। ৯ মে মালয়েশিয়ার সাধারণ নির্বাচনে নাজিবের নেতৃত্বাধীন বারিসান ন্যাসিওনাল (বিএন) অপ্রত্যাশিত পারাজয় বরণ করে। বিরোধী পাকাতান হারাপান জোটের জয়ের পর নাজিবের ৯২ বছর বয়সী সাবেক রাজনৈতিক গুরু মাহাথির মোহাম্মদ ১০ মে নতুন প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেন।
শপথ নিয়েই তিনি জানান, নাজিবের দুর্নীতির কারণে দেশ থেকে পাচার হওয়া কোটি কোটি ডলার দেশে ফিরিয়ে আনার চেষ্টা করবেন তিনি। সেই লক্ষ্যকে সামনে রেখে মালয়েশিয়ার অ্যাটর্নি জেনারেল ও দুর্নীতিবিরোধী সংস্থার কর্মকর্তাদেরও পরিবর্তন করেছেন তিনি। বুধবার নাজিবের সাবেক প্রতিদ্বন্দ্বী মালয়েশিয়ার কারাবন্দি সংস্কারবাদী রাজনীতিক আনোয়ার ইব্রাহিম মুক্তি পান। সমকামিতার দায়ে আনোয়ারকে কারাদ- দেওয়া হয়েছিল, যাকে রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত দ- বলে বিবেচনা করেন অনেকে।

Leave a comment

XHTML: You can use these html tags: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <strike> <strong>

Videos