শুক্র. এপ্রি ১৯, ২০১৯

বাণিজ্য মেলায় শেষ সময়ে কেনাকাটার ধুম

বাণিজ্য মেলায় শেষ সময়ে কেনাকাটার ধুম

Last Updated on

নিজস্ব প্রতিবেদক :খাবারের দোকান থেকে কাপড়, আসবাবপত্র থেকে কসমেটিকস সব ধরনের দোকানেই চলছে কেনাকাটার ধুম। গতকাল শুক্রবার ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা ঘুরে এ চিত্র দেখা গেছে।
মাসব্যাপী ২৪তম ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলার শুক্রবারই শেষ হওয়ার কথা ছিল। পরে মেলা কর্তৃপক্ষ আরও একদিন বাড়িয়ে তা আজ শনিবার পর্যন্ত করেছে। মেলার শেষ মুহূর্তে প্রয়োজনীয় পণ্য কিনছেন দর্শনার্থীরা।
শুক্রবার মেলা ঘুরে দেখা যায়, সকাল থেকেই ঘোরাঘুরির পাশাপাশি মেলার সব ধরনের দোকানেই রয়েছে ভিড়। তবে দুপুর গড়িয়ে বিকেল হতেই সেই ভিড় আরও বাড়ছে। দোকানিরা আশা করছেন, সন্ধ্যার আগে আগে বিক্রি আরও বাড়বে।
শুক্রবার মেলা থেকে মগ, প্লেট আর কাপ কেনেন বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে কর্মরত মনির হোসেন। তিনি বলেন, ‘মেলা শেষ হয়ে যাচ্ছে বলেই আসছি। প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র কিনলাম। আরও কিছু বাকি আছে, সেগুলোও কিনব।’
অন্যদিকে মেলার স্টলগুলোও তুলনামূলক কম দামে পণ্য বিক্রি করেছেন। কেউ কেউ আগের তুলনায় বেশি ছাড় দিচ্ছেন। মেলার শুরুতে ইটালিয়ানো তাদের নির্দিষ্ট কিছু ক্রোকারিজ পণ্যে ২০ শতাংশ ছাড়ে বিক্রি করত। এখন সেগুলো ৪০ শতাংশ ছাড়ে বিক্রি হচ্ছে। ইটালিয়নোর সেলস এক্সিকিউটিভ ইমন বলেন, ‘আমরা অল্প লাভ রেখে পণ্য ছেড়ে দেয়ায় বেচাকেনাও বেশ ভালো হচ্ছে।’
মেলায় ৫০ শতাংশ ছাড়ে জুতা বিক্রি করছে র‌্যাভেঞ্জ প্যাভিলিয়ন। এর ম্যানেজার সালাউদ্দিন বলেন, ‘বৃহস্পতি ও শুক্রবার বেচাকেনা খুব ভালো। আশা করছি, মেলার শেষ দিন শনিবারও ভালো বেচাকেনা হবে।’
এসএমই ফাউন্ডেশন প্যাভিলিয়নের ব্যাগ বাজার স্টলের বিক্রেতা রাকিবুল হাসান বলেন, ‘সন্ধ্যার আগে আগে বেচাকেনা আরও বেড়ে যাবে।’ উল্লেখ্য, এবারের মেলায় প্যাভিলিয়ন, মিনি-প্যাভিলিয়ন, রেস্তোরাঁ ও স্টলের মোট সংখ্যা ৬০৫টি। এর মধ্যে প্যাভিলিয়ন ১১০টি, মিনি-প্যাভিলিয়ন ৮৩টি ও রেস্তোরাঁসহ অন্যান্য স্টল রয়েছে ৪১২টি। বাংলাদেশ ছাড়াও ২৫টি দেশের ৫২ প্রতিষ্ঠান মেলায় অংশ নিয়েছে। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের কারণে ৯ জানুয়ারি শুরু হওয়া এই মেলা শেষ হবে শনিবার ৯ ফেব্রুয়ারি।

Please follow and like us:
0