বন্যায় নিরাপদ স্থানে ১২ লাখের বেশি গবাদিপশু

বন্যায় নিরাপদ স্থানে ১২ লাখের বেশি গবাদিপশু

Last Updated on

নিজস্ব প্রতিবেদক : দেশের বিভিন্ন জেলায় বন্যা পরিস্থিতির কারণে ১২ লাখ ১৯ হাজার ৬২২টি গবাদিপশু ও ৪৯ লাখ ৬০ হাজার ৪২১টি হাঁস-মুরগি উঁচু জায়গায় সরানো হয়েছে। মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের নিয়ন্ত্রণকক্ষ থেকে এই তথ্য জানানো হয়েছে। চলতি বন্যা পরিস্থিতিতে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয় ২৪৯টি ভেটেরিনারি মেডিকেল টিমও গঠন করেছে। মেডিকেল টিমগুলো ৮১ হাজার ১৬৮টি গবাদি পশু ও ৪ লাখ ১৩ হাজার ৬৩৪টি হাঁস-মুরগির চিকিৎসা করেছে, এছাড়া বিতরণ করা হয়েছে এক হাজার ৭১৩ মেট্রিক টন গো-খাদ্য।
এদিকে বন্যাকবলিত এলাকায় মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ খাতের ক্ষতি পুষিয়ে নিতে দ্রæত ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম। একইসঙ্গে বন্যাকবলিত এলাকায় স্বাভাবিক মৎস্য ও প্রাণিজ উৎপাদন অব্যাহত রাখতে সুনির্দিষ্ট কর্মপরিকল্পনা প্রণয়ন ও বাস্তবায়নে কর্মকৌশল নির্ধারণেরও তাগিদ দিয়েছেন তিনি। মন্ত্রীর নির্দেশনার আলোকে সংশ্লিষ্ট অধিদপ্তরে নির্দেশনা জানিয়ে চিঠি পাঠিয়েছে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়। মৎস্য অধিদপ্তরে পাঠানো চিঠিতে বন্যা পরবর্তী মৎস্য খাতের ক্ষয়-ক্ষতি নিরূপণ করে ক্ষতিগ্রস্ত খামারিদের কারিগরি সহায়তা দিতে মাঠ পর্যায়ের মৎস্য কর্মকর্তাদের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। বন্যা পরবর্তী মৎস্য চাষে চাহিদা পূরণের লক্ষ্যে সরকারি-বেসরকারি খামারিদের অতিরিক্ত পোনা উৎপাদন ও মজুদ করে পরবর্তীতে ব্যবহারের ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে চিঠিতে। এ জন্য মৎস্য চাষি, উদ্যোক্তা, খামারিদের পরামর্শ ও কারিগরি সহায়তা দিতে মৎস্য অধিদপ্তর মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের নির্দেশনা দিয়েছে। অন্য দিকে প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরে পাঠানো চিঠিতে বন্যাদুর্গত এলাকায় গবাদিপশু-পাখির রোগব্যাধি প্রতিরোধ ও প্রতিকার কার্যক্রম জোরদার করার পাশাপাশি বন্যা পীড়িতদের পরামর্শ, কারিগরি সহায়তা দিতে মাঠ পর্যায়ের প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তাদের নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। বন্যা পরবর্তী পুনর্বাসনের জন্য সম্ভাব্য পদক্ষেপগুলোর চেকলিস্ট মন্ত্রণালয়ে পাঠাতে ও সে অনুযায়ী কার্যক্রম নিতে বলা হয়েছে। প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরে নিয়ন্ত্রণ কক্ষ চালু করে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত প্রাণিসম্পদ খাতের সর্বশেষ চিত্র এবং বন্যাকবলিত এলাকায় নেয়া পদক্ষেপের তথ্য প্রতিদিন মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হচ্ছে। এছাড়াও বন্যকবলিত এলাকায় চলমান ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রমে অন্তর্ভুক্ত পশু খাদ্য খাতে বাজেট বৃদ্ধির অনুরোধ জানিয়ে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ে চিঠি দিয়েছে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়।

 

Please follow and like us:
3
20
fb-share-icon20
Live Updates COVID-19 CASES