নির্বাচনে হস্তক্ষেপ না করতে রুশ-মার্কিন চুক্তি চান পুতিন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : রাশিয়া এবং যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে চুক্তি করে একে অপরের নির্বাচনে সাইবার হস্তক্ষেপ না করার বিষয়টি নিশ্চিত করার প্রস্তাব করেছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন।
যুক্তরাষ্ট্রে ৩ নভেম্বরের নির্বাচনকে সামনে রেখে শুক্রবার এক বিবৃতিতে পুতিন যুক্তরাষ্ট্র এবং রাশিয়ার মধ্যে আবার সবকিছু ঠিকঠাক করে নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন। আর এর সঙ্গে সঙ্গে পুতিন এও বলেছেন, সাইবার জগতে হস্তক্ষেপের মতো ঘটনাগুলো ঠেকাতে তিনি দুই দেশের মধ্যে একটি চুক্তি চান। তিনি বলেন, “তথ্য ও প্রযুক্তি কিংবা উচ্চ-প্রযুক্তি পদ্ধতি ব্যবহারের ক্ষেত্রে এবং নির্বাচনী প্রক্রিয়াসহ একে অপরের অভ্যন্তরীন বিষয়ে নাক না গলানোর পারস্পরিক নিশ্চয়তা দেওয়ার প্রস্তাব করছি আমি।”
যুক্তরাষ্ট্রে আসন্ন নির্বাচনের এই সময়ে মস্কোর সঙ্গে ওয়াশিংটনের সম্পর্ক তলানিতে ঠেকেছে। যুক্তরাষ্ট্রের গোয়েন্দা সংস্থাগুলো বলছে, রাশিয়া ২০১৬ সালের মার্কিন নির্বাচনে হস্তক্ষেপ করে ডনাল্ড ট্রাম্পের অনুকূলে কাজ করেছে। ওই নির্বাচনে ট্রাম্পের প্রতিপক্ষ হিলারি ক্লিনটনের প্রচারাভিযানেও রাশিয়া হ্যাকিং করেছে বলেও অভিযোগ যুক্তরাষ্ট্রের। তবে মস্কো এইসব অভিযোগ অস্বীকার করেছে।
যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প বর্তমানে আবার নির্বাচনে জয়লাভের চেষ্টায় প্রতিপক্ষ জো বাইডেনের বিরুদ্ধে প্রচার চালাচ্ছেন। এর মধ্যেই ক্রেমলিন থেকে দেওয়া বিবৃতিতে পুতিন বলেছেন, “আমাদের এই সময়ে প্রধান একটি কৌশলগত চ্যালেঞ্জ হচ্ছে, ডিজিটাল জগতে বড় ধরনের সংঘাতের ঝুঁকি।” “তথ্য এবং প্রযুক্তি (আইসিটি) ব্যবহারের ক্ষেত্রে আমাদের সম্পর্ককে আবার ঠিক করে নিতে বাস্তবিক নানা পদক্ষেপের একটি বিস্তৃত কর্মসূচি অনুমোদনের জন্য আমি আরও একবার যুক্তরাষ্ট্রকে আবেদন জানাচ্ছি।”
বড় ধরনের সাইবার হামলার ঘটনা ঠেকাতে দুই দেশের একটি চুক্তিতে পৌঁছানোর প্রস্তাব দিয়ে পুতিন একে তুলনা করেছেন সেই ১৯৭২ সালের যুক্তরাষ্ট্র-সোভিয়েত চুক্তির সঙ্গে। স্নায়ুযুদ্ধের তুমুল উত্তেজনার ওই সময়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে এই চুক্তি হয়েছিল।
চুক্তির প্রস্তাব ছাড়াও আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য ও নিরাপত্তামূলক বিষয় নিয়ে আলোচনার জন্য দুই দেশের বিভিন্ন সংস্থার মধ্যকার যোগাযোগ লাইন আবার পুরোদমে চালু করারও আহ্বান জানিয়েছেন পুতিন।

Please follow and like us: