বুধ. ডিসে ১১, ২০১৯

নরিচ সিটিকে উড়িয়ে লিভারপুলের শুরু

নরিচ সিটিকে উড়িয়ে লিভারপুলের শুরু

Last Updated on

ক্রীড়া ডেস্ক : লিভারপুলের কাছে পাত্তাই পেল না এবার ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে উঠে আসা নরিচ সিটি। দুর্দান্ত জয়ে লিগ শুরু করেছে ইয়ুর্গেন ক্লপের দল। অ্যানফিল্ডে শুক্রবার রাতে প্রিমিয়ার লিগের উদ্বোধনী ম্যাচে ৪-১ গোলে জিতেছে গতবারের রানার্সআপরা। ম্যাচের সপ্তম মিনিটেই আত্মঘাতী গোলে এগিয়ে যায় চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শিরোপাধারীরা। বাঁ দিক থেকে দিভোক অরিগির ক্রসে বল বিপদমুক্ত করতে গিয়ে নিজেদের জালে পাঠিয়ে দেন গ্র্যান্ট হ্যানলি। একের পর এক আক্রমণ শানিয়ে ১৯তম মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করে স্বাগতিকরা। ডি-বক্সের ভেতর জটলা থেকে রবের্তো ফিরমিনোর বাড়ানো বলে কোনাকুনি শটে গোলের খাতা খোলেন গত মৌসুমের সর্বোচ্চ গোলদাতা মোহামেদ সালাহ। এবার প্রিমিয়ার লিগে উঠে আসা নরিচ আরও পিছিয়ে পড়ে ভার্জিল ভন ডাইকের হেডে। ২৮তম মিনিটে মিশরের ফরোয়ার্ড সালাহর কর্নার থেকে বল সরাসরি গিয়েছিল অরক্ষিত অবস্থায় থাকা দীর্ঘদেহী এই ডাচ ডিফেন্ডারের মাথায়। তিন মিনিট পর ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড ফিরমিনোর জোরালো ভলি ঠেকিয়ে আরেকটি গোল খাওয়া থেকে অতিথিদের বাঁচান ডাচ গোলরক্ষক টিম ক্রুল। তবে গোলের জন্য মরিয়া লিভারপুল বিরতির আগে ব্যবধান আরও বাড়িয়ে ফেলে। ডিফেন্ডার ট্রেন্ট অ্যালেকজ্যান্ডার-আর্নল্ডের নিখুঁতভাবে উঁচু করে বাড়ানো বল হেডে জালে পাঠান বেলজিয়ান ফরোয়ার্ড অরিগি। প্রথমার্ধে লিভারপুলের একমাত্র দুশ্চিন্তার কারণ হয় চতুর্থ গোলের আগে চোট পেয়ে আলিসনের মাঠ ছাড়াটা। ব্রাজিলিয়ান গোলরক্ষকের বদলি হিসেবে নামেন কদিন আগেই লিভারপুলে যোগ দেওয়া স্পেনের আদ্রিয়ান। দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই গোল পেতে পারতো অল-রেডরা। জর্ডান হেন্ডারসনের জোরালো শট গোলরক্ষক খানিকটা ঠেকানোর পর বাকিটা ঠেকায় পোস্ট। অপরপ্রান্তে ৬৩তম মিনিটে মরিটস লাইটনারের জোরালো শট ক্রসবারে লাগে। তবে পরের মিনিটেই অফসাইডের ফাঁদ এড়িয়ে নিচু কোনাকুনি শটে ব্যবধান কমান ফিনিশ স্ট্রাইকার তেমু পুক্কি। প্রথমার্ধের মতো একতরফাভাবে না হলেও একের পর এক আক্রমণে দ্বিতীয়ার্ধের নিয়ন্ত্রণ ছিল স্বাগতিকদের পায়ে। তবে ক্রুলের দৃঢ়তায় আরও গোল যোগ হয়নি স্কোরশিটে। এ নিয়ে ঘরের মাঠ অ্যানফিল্ডে টানা ৪১ লিগ ম্যাচে অপরাজিত রইল লিভারপুল।

Please follow and like us:
0