নদীর গল্প

নদীর গল্প

Last Updated on

ওমর কায়সার : একটা নদী খরস্রোতা

একটা নদী শান্ত
জলপরিদের বাড়ির খবর
কোন্ নদীটি জানত?

একটি যদি ঘর কেড়ে নেয়
আরেকটা দেয় ধান।
কোন্ নদীটির ঢেউয়ের দোলায়
উথলে ওঠে প্রাণ?

দুইটি নদীর একটিতো নাম
জোয়ার ভাটার মাইনি
কান্না হাসির রহস্য তার
অনেক খুঁজে পাইনি।

(২)
এমরান চৌধুরী
বৃষ্টি মেয়ের দিন

বাজায় নূপুর টাপুর টুপুর মিষ্টি মেয়ে বৃষ্টি
ছন্দ সুরে ভর দুপুরে হয় অনুপম সৃষ্টি
টিনের চালে হাওয়ায় পালে বরফ কুচির মতো
বন বাদাড়ে এক নাগাড়ে ঝরছে অবিরত।

গোলাপ বাগে ঘোর সোহাগে আলতো চুমো এঁকে
উছল মনে সন্ধিক্ষণে কাঁপছে থেকে থেকে
নদীর ধারে জলার পাড়ে বৃষ্টি মেয়ের দিন
উচ্ছলতায় গুল্মলতায় আনন্দে রঙিন।

বাড়ির পাশে দূর্বাঘাসে লাফায় ফড়িং ধেই
বৃষ্টি মেয়ে যাচ্ছে নেয়ে হারিয়ে ফেলে খেই
উঠোন পরে উঠছে ভরে অবাধ বারিধারা
ছলাৎ ছলাৎ জলের নিনাদ হর্ষে মাতোয়ারা।

মুরগি ছানা দিচ্ছে হানা আর মানে না ঝাঁপ
উঠোন-জলে নাইবে বলে দেয় খুশিতে লাফ
নিমের ডালে কাক আড়ালে চুপসে গিয়ে খুব
গুটিয়ে ডানা দেয় অজানা ভাবের ভবে ডুব।

ঝরকা খুলে সতেজ ফুলে যেই রেখেছি চোখ
দেখছি ধরা আকুল করা স্বচ্ছ মনোলোক।

(৩)
অবিনাশ আচার্য
বৃষ্টির দিনে

বাইরে যখন বৃষ্টি ঝরে
আকাশ আঁধার কালোয় ভরে
মনটা আমার রয় না ঘরে
ঘরের ভেতর কেমন করে রই,

বিজলী চমক মেঘের ফাঁকে
গুড়ুর-গুড়ুর বজ্র ডাকে
পুকুরপাড়ের নালার বাঁকে
উজিয়ে যখন উঠতে থাকে কৈ

মাছগুলো সব ধরছে কারা
দস্যিছেলের দলের যারা?
আমিও তখন পাগলপারা
রই না ঘরে-বাঁধনহারা হই।

(৪)
সনজিত দে
ভালোবাসা

এখানে পাহাড় দাঁড়িয়ে রয়েছে দু’হাত বাড়িয়ে তার,
নদীকে জানায় কত ভালবাসা, দারুণ চমৎকার!
হৃদয় চিরে সে নদীকে বাঁচায় বিলিয়ে ঝরনা ধারা,
ঝরনার জলে ভরপুর নদী ছুটে চলে মাতোয়ারা ।

সেই ছোট নদী সাগরে গড়ায়, মেতে ওঠে কোলাহলে,
সাগরের সাথে এক হয়ে যায় ঝরনাধারার জলে।
নদী ও সাগর মাতে উৎসবে দিন কাটে কী যে ভালো!
হাসির ফোয়ারা খেলা করে যায় উচ্ছ্বাসে জাগে আলো।

কিন্তু পাহাড় কেমন রয়েছে ভাবে না সাগর নদী,
কী বা ক্ষতি হতো পাহাড়ের কথা একটু ভাবতো যদি?

(৫)
আবু ইউসুফ সুমন
বৃষ্টি এলো

আমের পাতা যাচ্ছে দুলে
মাতাল সমীরণে
বৃষ্টি এলো সবুজ মাঠে
ময়ূর ডাকা বনে।

বাড়ি থেকে জল গড়িয়ে
ডোবায় গিয়ে মেশে
আকাশ বেয়ে বৃষ্টি নাচে
টিনের চালে এসে।

বৃষ্টিকালে ভাবনা জমে
অতীত নানান স্মৃতির
আবেগঘন সুখ বেদনা
মায়া কিংবা প্রীতির!

এমন ক্ষণে কেমন যেনো
উদাস উদাস মন
ভালো লাগে মেঘের হাসি
বৃষ্টিরই ঝন ঝন।

(৬)
রতœা বনিক
ইচ্ছে

খোকন সোনার ইচ্ছে করে
প্রজাপতির মতো
রঙিন পাখায় ভর করে উড়তে অবিরত।

ইচ্ছে করে কাক চক্ষু
শান্ত দিঘির জলে
থাকতে ভেসে সারাবেলা হাসের সাথে মিলে।

ইচ্ছে করে উঁচু ডালে
দেখতে পাখির বাসা,
পাখির ছানা ছুঁয়ে তাদের দিতে ভালোবাসা।

ইচ্ছে আরো খোকন সোনার
হতে জলের ঢেউ,
মনের কথা মা বোঝে তার বোঝে না আর কেউ।

তুলতুলে তার নরম গালে
মায়ের আদর পেয়ে
খোকন সোনার ইচ্ছে সুখের লতা ওঠে বেয়ে।

(৭)
অনামিকা দত্ত
খোকার ভাবনা

ফুল হাসছে,পাখি হাসছে
হাসছে সবুজ বন,
আমার কেবল হাসতে মানা
বন্দী অবুঝ মন।

নদী হাসছে অথৈ জলে
করছে মাছেরা খেলা,
আমার কেবল খেলতে মানা
বন্ধ পাঠশালা।

বকের সারি দল বেঁধে ঐ
ঘুরছে ভয়হীন মনে,
আমার কেবল মিশতে মানা
বন্ধুদের ঐ সনে।

কেমন করে কাটে বলো
আমার সারাটাদিন,
আমার কেবল প্রশ্ন জাগে
আনলো কে এই দিন?

Please follow and like us:
3
20
fb-share-icon20
Live Updates COVID-19 CASES