রবি. মে ১৯, ২০১৯

ধারণার চেয়েও দ্রুত প্রসারিত হচ্ছে মহাশূন্য

ধারণার চেয়েও দ্রুত প্রসারিত হচ্ছে মহাশূন্য

Last Updated on

প্রত্যাশা ডেস্ক : অসংখ্য গ্যালাক্সি, নক্ষত্রসহ অসীম মহাশূন্য, যেখানে আমাদের বসবাস, তা ধারণার চেয়েও বেশি দ্রুত প্রসারিত হচ্ছে বলে জানিয়েছেন মহাকাশ বিজ্ঞানীরা। নতুন পর্যবেক্ষণে তারা জানতে পেরেছেন পদার্থ বিজ্ঞানের সূত্রের সাথে অমিল রেখে দ্রুত গতিতে প্রসারিত হচ্ছে মহাশূন্য।
হাজার-লক্ষ আলোকবর্ষ দূর থেকে আগত আলো পর্যবেক্ষণ করে বিজ্ঞানীরা জানতে পারেন মহাশূন্য কীভাবে প্রসারিত হচ্ছে। গ্যালাক্সির সেই আলো বা ‘রেডশিফট’ পরিমাপ করে বিজ্ঞানীরা জেনেছেন বিস্তারিত। তবে এখন নতুন এক গবেষণায় দেখা যাচ্ছে বিজ্ঞান যা পরিমাপ করছে, বাস্তবে তা দেখা যাচ্ছে না। মহাশূন্য প্রসারিত হওয়ার ধারণা তাই অনেকটাই পাল্টে যাচ্ছে। মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসা ও ইউরোপিয়ান স্পেস এজেন্সি পরিচালিত দুটি নতুন গবেষণায় জানা গেছে মহাকাশ প্রসারিত হওয়ার ধারণায় যে গরমিল দেখা গেছে, তা হিসাবের কোনো গরমিল নয়। মূলত ধারণার চেয়েও ৯ শতাংশ বেশি দ্রুত গতিতে প্রসারিত হচ্ছে মহাশূন্য।
মহাকাশ সম্পর্কে নতুন এই গবেষণার মূল গবেষক প্রফেসর এডাম রাইস। মহাকাশ দ্রুতগতিতে প্রসারিত হচ্ছে, এই প্রমাণ দেয়ার জন্য তিনি ও তার সহকর্মীরা ২০১১ সালে পদার্থ বিজ্ঞানে নোবেল পুরস্কার পেয়েছিলেন। প্রফেসর রাইস বলেছেন, নতুন গবেষণায় মহাশূন্য ধারণার চেয়ে দ্রুত প্রসারের যে প্রমাণ পাওয়া গেছে, তা সত্যিকার অর্থেই আলোচনার বিষয়। তিনি আরো জানান বর্তমানে মহাশূন্য কতোটা দ্রুত প্রসারিত হচ্ছে আর প্রসারিত হওয়ার ব্যাপারে বিজ্ঞানীরা আগে কেমন ধারণা দিয়েছেন তা যদি না মেলে, তাহলে বুঝতে হবে মহাকাশ সম্পর্কে বিজ্ঞানীরা আরো কিছু জানতে ব্যর্থ হচ্ছেন। এক্ষেত্রে মহাশূন্যে থাকা ডার্ক এনার্জি, ডার্ক ম্যাটার ও ডার্ক রেডিয়েশন সম্পর্কে জানার ঘাটতি বড় বিবেচনার বিষয় হতে পারে। প্রফেসর রাইস জানিয়েছেন মহাশূন্য সম্পর্কে ধারণার এই অমিল সম্পর্কে তারও কিছু জানা নেই। তবে ভবিষ্যতে হাবল টেলিস্কোপের সঠিক ব্যবহারের মাধ্যমে তার গবেষক দল এই রহস্য উন্মোচন করতে পারবে বলে তিনি আশাবাদী। তথ্যসূত্র: নিউজ স্কাই

Please follow and like us:
0