ধর্ষণ-হরিলুট শিখতে চাও, বাংলাদেশে আসো: মন্টু

ধর্ষণ-হরিলুট শিখতে চাও, বাংলাদেশে আসো: মন্টু

নিজস্ব প্রতিবেদক : বাংলাদেশে এখন ধর্ষণের মহোৎসব চলছে মন্দব্য করেছেন গণফোরাম একাংশের আহ্বায়ক মোস্তফা মহসিন মন্টু।
গতকাল শনিবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে নারী নির্যাতন, ধর্ষণ ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে মানববন্ধন করে গণফোরামের একাংশ। মানববন্ধনে মোস্তফা মহসিন মন্টু বলেন, “আজকে সারা দেশে ধর্ষণের মহোৎসব চলছে।এর প্রতিবাদ জানাতে আজকে আমরা এই মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করছি। আজকে হেরোইনে আসক্ত হয়ে ক্ষমতাসীন যুবকরা যাকে তাকে ধর্ষণ করে যাচ্ছে। দেশে দুর্নীতির হরিলুট চলছে। ধর্ষণ ও হরিলুট যদি শিখতে চাও, দুর্নীতি শিখতে চাও তাহলে বাংলাদেশে আসো।” এসবের প্রতিবাদে দুর্বার আন্দোলন গড়ে তোলার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, “আমরা বাংলাদেশে কয়েকজনের নির্বাচন দেখেছি, ১৯৭০ সালে বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে সারা বাংলাদেশের মানুষ একত্রিত হয়ে নির্বাচন করেছে, ৯০ সালে গণঅভ্যুত্থান হয়েছে। কিন্তু আজকে বাংলাদেশে নির্বাচনের নামে হরিলুট চলছে, ভোটের অধিকার কেড়ে নেওয়া হয়েছে। “আমরা এর থেকে পরিত্রান চাই, দুর্বার আন্দোলন গড়ে তুলে ধর্ষণ দুর্নীতি হরিলুটের প্রতিবাদে গণফোরামের নেতৃত্বে সারাদেশে আন্দোলন গড়ে তুলব।”
গণফোরামের নির্বাহী সভাপতি অধ্যাপক আবু সাইয়িদ বলেন, “বিশ্বের কিছু কিছু দেশে ধর্ষণের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদ- দেওয়া হয়েছে। প্রায় ১৪০টি দেশে ধর্ষণের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদ- নেই, কারণ ধর্ষণ একটি স্পর্শকাতর বিষয়।”
“আসলে মানুষের মনের খোরাক তোষামোদি করার জন্য ধর্ষণের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদ- করা হয়েছে। কারণ যারা ধর্ষক তারা সরকারের পৃষ্ঠপোষকতায়।”
সিনিয়র সহ-সভাপতি ও আহ্বায়ক কমিটির সদস্য সচিব সুব্রত চৌধুরী মানববন্ধনে বলেন, “অত্যন্ত দুঃখ ভারাক্রান্ত মন নিয়ে আজকে আমরা মানববন্ধনে দাঁড়িয়েছি। সরকার ১২ বছর যাবৎ অবৈধভাবে দেশ পরিচালনা করছে। সরকারি দল নষ্ট রাজনীতিতে যুক্ত হয়ে গেছে অপরাজনীতির ধারক-বাহক হয়েছে, ধর্ষণ রাহাজানির ধারক-বাহক হয়েছে। সরকারের অনুগত বাহিনী আওয়ামী লীগ নয়, ছাত্রলীগ নয়, পুলিশ বাহিনী। “দেশে গণতন্ত্র নেই। চালের, আলুর সিন্ডিকেট, দুর্নীতির সিন্ডিকেট, সব জায়গায় শুধু সিন্ডিকেট। আমাদের ঐক্যবদ্ধভাবে গণজাগরণ সৃষ্টি করতে হবে।” মনাববন্ধনের পর একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়।

Please follow and like us: