Published On: মঙ্গলবার ১৫ মে, ২০১৮

দ্রুত ওজন কমানোর মসলা

প্রত্যাশা ডেস্ক : কেবল খাবারের স্বাদই বাড়ায় না বরং কিছু মসলা ওজন দ্রুত কমাতে ও নিয়ন্ত্রণে রাখতেও সাহায্য করে। পুষ্টিবিজ্ঞানের তথ্যানুসারে খাদ্য ও পুষ্টিবিষয়ক একটি ওয়েবসাইটে বিভিন্ন মসলা ও ভেষজ উপাদান নিয়ে প্রকাশিত প্রতিবেদন অবলম্বনে এখানে এমন কিছু মসলার কথা জানানো হল যা ওজন কমানো আরও দ্রুত করবে।
দারুচিনি: দারুচিনি ক্ষুধা কমাতে সাহায্য। রক্তের শর্করার মাত্রা কমায় এবং দীর্ঘক্ষণ পেট ভরা রাখে। চাইলে ওটমিলে দারুচিনি যোগ করতে পারেন। টক দইয়ে বা চায়ে মেশাতে পারেন দারুচিনি। মুরগির মাংসে এটা ভিন্ন স্বাদ যুক্ত করে।
লাল মরিচ: ঝাল শরীরের তাপমাত্রা বাড়ায়। ফলে বিপাকও বাড়ে। বিপাক যত বেশি ক্যালরি তত বেশি খরচ হবে। খাবারে মরিচ বা ঝাল যোগ করুন। এটা প্রতিবেলার খাবারে ১শ’ ক্যালরি পোড়াতে সাহায্য করবে। বাদাম, সুপ, ডিম ইত্যাদি খাবারের উপরে হালকা লাল-মরিচ ছিটিয়ে খেতে পারেন।
জিরা: খাবারে এক টেবিল-চামচ জিরা যোগ করুন। এটা তিনগুন বেশি চর্বি কমাতে সাহায্য করে। সম্প্রতি স্থূলকায় নারীদের উপর পরিচালিত গবেষণা থেকে এমনটাই জানা গেছে। তাছাড়া জিরা খাবারে স্বাদও বাড়ায়। চাইলে প্রতিদিনকার খাবার যেমন- সুপ, সবজি, ডাল, রুটি ও অন্যান্য যে কোনো খাবার পরিবেশনে জিরা ব্যবহার করতে পারেন।
আদা: রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখতে পারে এই মসলা। অর্থাৎ মিষ্টিজাতীয় খাবার খাওয়ার পর শরীরের গ্লুকোজের মাত্রা বেড়ে যাওয়া থেকে রক্ষা করতে পারে আদা। হলুদ, লাল-মরিচও তাই। এগুলোতেও আছে চর্বি পোড়ানোর উপাদান, ‘থার্মোজেনিক’। চা, সালাদ, মাছ, ফলসহ অন্যান্য যে কোনো খাবারে এটা যোগ করতে পারেন।
রোজমেরি: রোজমেরি বিপাক বৃদ্ধি করে। এটা হজম বাড়াতে এবং ওজন কমাতে সাহায্য করে। হালকা গরম পানিতে রোজমেরি ভিজিয়ে পান করতে পারেন। তবে সেটা যেন খালি পেটে না হয় সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে।
এলাচ: ভিন্ন ঘ্রাণযুক্ত এলাচ বেশ পরিচিত। এর তাপ উৎপাদন ক্ষমতা ওজন কমাতে সাহায্য করে। পেটে গ্যাস উৎপন্ন হওয়া কমিয়ে ফোলাভাব ও অস্বস্তি দূর করে। দ্রুত ওজন কমাতে খাবারে এক চিমটি বা দুইটা এলাচ যোগ করুন।
গোল মরিচ: কালো গোল মরিচ পিপারিন সমৃদ্ধ যা খাবারে ভিন্ন স্বাদ এনে দেয়। এই উপাদান চর্বির কোষ গঠনে বাধা দেয়। ফলে ওজন কমাতে সাহায্য করে। পাশাপাশি পরবর্তি সময়েও ওজন বাড়তে দেয় না

Videos