Published On: বৃহস্পতিবার ১৪ জুন, ২০১৮

দুই ঘণ্টা লিফটে শ্বাসরুদ্ধকর অবস্থায় ছিলেন রামেক উপাধ্যক্ষ

রাজশাহী  প্রতিনিধি : লিফটে প্রায় দুই ঘণ্টা শ্বাসরুদ্ধকর অবস্থায় আটকে থাকার পর অসুস্থ অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে রাজশাহী মেডিকেল কলেজের (রামেক) উপাধ্যক্ষ ডা. মো. বুলবুল হাসানকে। প্রায় এক ঘণ্টার চেষ্টায় তাকে উদ্ধার করেন ফায়ার সার্ভিস সদস্যরা। ঘটনা ঘটেছে বুধবার দিবাগত রাত ১০টার দিকে, রাজশাহী মহানগরীর কাদিরগঞ্জ এলাকার ১০ তলা ভবন পিস টাওয়ারে। উপাধ্যক্ষ বর্তমানে সুস্থ আছেন বলে পরিবারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।
রাজশাহী ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার ফরহাদ হোসেন বলেন, রাত ৯টা ৫৪ মিনিটে আমরা খবর পেয়ে ১৫ মিনিটের মধ্যে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হই। পরে ছাদে গিয়ে লিফটের মেইন লাইন থেকে সংযোগ দেওয়ার চেষ্টা করি। অতঃপর দশম, নবম, অষ্টম তলার গেট না খুললে সপ্তম তলার গেট খুলে তাকে উদ্ধার করি। ফ্যান-লাইট না থাকায় ডা. বুলবুল গুরুতর অবস্থায় ছিলেন। পরে তিনি স্বাভাবিক হন। এমন পরিবেশে দুই ঘণ্টা লিফটের ভিতরে আটকে থাকা আশ্চর্যজনক। তিনি নিঃশ্বাস বন্ধ হয়ে মারাও যেতে পারতেন বলে জানান তিনি। রামেক উপাধ্যক্ষ ডা. বুলবুল হাসান বলেন, মহানগরীর কাদিরগঞ্জ এলাকার পিস টাওয়ারের অষ্টম তলার দুটি ফ্ল্যাট নিয়ে ভাড়া থাকেন তারা। বুধবার রাত পৌনে ৯টার দিকে অষ্টম তলা থেকে নিচের দিকে যাচ্ছিলেন তিনি। কিন্তু সমস্যা দেখা দেওয়ায় লিফটটি নিচে না নেমে উল্টো দশম তলায় উঠে যায়। পরে সেখানে আটকা পড়লে প্রথমে তিনি পিস টাওয়ারের মালিক পক্ষকে ফোন দিলে কেউ ফোন রিসিভ করেননি। এক পর্যায়ে তার মেয়ে ফারজানা ফাইজাকে ফোন করে ভেতর আটকে থাকার কথা জানান। কিন্তু তার পরিবারের লোকজন পিস টাওয়ারের সভাপতি ও নাইট গার্ডসহ কারো সাহায্য না পেয়ে একটি শাবল নিয়ে দরজা খোলার চেষ্টা করেন। কিন্তু তাতেও কাজ হয়নি। পরে রাত ৯টা ৫৪ মিনিটে ফায়ার সার্ভিসে ফোন দিলে প্রায় এক ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা তাকে উদ্ধার করেন। ওই ভবনের সপ্তম তলায় বসবাসকারী শওকত আলী বলেন, এই ভবনের লিফটের সমস্যার কথা বার বার মালিক পক্ষকে জানিয়েছেন। কিন্ত এমন অভিযোগে কোনো ব্যবস্থা হয়নি। পিস টাওয়ার সোসাইটির সভাপতি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক ড. মো. আনোয়ার হোসেন বলেন, এটি অনাকাক্সিক্ষত ঘটনা। খবর পাওয়ার পর তারাই উদ্ধারের জন্য ফায়ার সার্ভিসে ফোন করেছেন। এ ব্যাপারে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন বলে জানান তিনি। মালিক পক্ষের মধ্যে মাহাবুব আলম সাংবাদিকদের বলেন, তিনি ভবনের দশম তলায় থাকেন। ইতিপূর্বে যাতায়াতে কোনো দিন কোনো সমস্যা হয়নি। যা

Leave a comment

XHTML: You can use these html tags: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <strike> <strong>

Videos