জেমির প্রস্তাব প্রিমিয়ার লীগের পরিবর্তে সুপার লীগ

ক্রীড়া ডেস্ক || আজকের প্রত্যাশা ডটকম

 

করোনা ভাইরাসের কারণে দেশের প্রিমিয়ার ফুটবল লীগ অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ। কবে শুরু হবে, সেটি ক্লাব কিংবা বাফুফে কেউই বলতে পারছে না। অনেক ক্লাব ‘গো’ ধরেছে লীগ বাতিল করার।

 

বিকল্প লীগ আয়োজন করার প্রস্তাব দিয়ে রেখেছেন আবাহনী। লীগ বাতিল হলে বাফুফেকে ভিন্ন তরিকায় হাঁটতে বলেছেন জাতীয় দলের হেড কোচ জেমি ডে।

 

বর্তমান লীগ যদি করোনার কারণে আর না হয়, সেক্ষেত্রে তিনি প্রস্তাব করছেন তিন মাসব্যাপী একটি হোম অ্যান্ড অ্যাওয়ে-ভিত্তিক প্রতিযোগিতা আয়োজনের।

 

যার নামও দিয়েছেন এই বৃটিশ কোচ – ‘বাংলাদেশ সুপার লীগ’। প্রতিযোগিতাটির সময়কালও প্রস্তাব করেছেন এই কোচ। সেপ্টেম্বরে শুরু হয়ে এটা চালানো যেতে পারেন তিন মাস, যাতে বছরটা একেবারে ফুটবলশূন্য না কাটে। বিকল্প প্রতিযোগিতা নিয়ে ডে’র ভাবনা, “আমি বাফুফেকে প্রস্তাব দিয়েছি ‘বাংলাদেশ সুপার লীগ’ নামে প্রতিযোগিতা আয়োজনের জন্য।

 

যেটা সেপ্টেম্বর থেকে নভেম্বর পর্যন্ত চলবে। ১৩টি দল হোম অ্যান্ড অ্যাওয়ে ভিত্তিতে খেলবে। এরপর শীর্ষ চার দল নিয়ে ডিসেম্বরে হবে সেমিফাইনাল।

 

তারপর বিজয়ী দুই দল খেলবে ফাইনালে। তাতে করে কিছুটা ফুটবলের সংস্পর্শে আসতে পারবে ফুটবলাররা। এরপর কিছুদিন বিরতি দিয়ে শুরু করা যেতে পারে নতুন ফুটবল মৌসুম।”

 

ইংলিশ কোচের মতে, লীগ না হলে এটা হতে পারে একটা কার্যকর প্রতিযোগিতা, ‘লীগ যদি না হয়, তখন এই নতুন প্রতিযোগিতাটি হতে পারে। যেখানে দলগুলো খেলবে একটি শিরোপার জন্য।

স্বল্প সময়ের মধ্যে লীগভিত্তিক প্রতিযোগিতাটি শেষ হবে বলে ম্যাচগুলোও হবে উপভোগ্য। তবে এটা শুধু আমার প্রস্তাব। আদৌ সেপ্টেম্বরে করোনা পরিস্থিতি ঠিক হবে কিনা, কেউ বলতে পারছে না।

 

তাছাড়া আমার এই প্রস্তাবে ক্লাবগুলোর সম্মতিরও বিষয়ও আছে।’ তবে এই প্রতিযোগিতা শুধু স্থানীয় ফুটবলারদের নিয়ে আয়োজনের পক্ষে তিনি, ‘আমি স্থানীয়দের পছন্দ করছি বাংলাদেশ সুপার লীগের জন্য। কারণ বিদেশিদের ধরে রেখে এই আসর খেলাটা ক্লাবগুলোর জন্য অনেক কঠিন হয়ে পড়বে।

 

তবে তারা চাইলে এক কিংবা দুজন বিদেশি খেলাতে পারে। আমি চাই না এটা নিয়মিত একটা আসর হিসেবে অন্তর্ভুক্ত হোক। আমি এটা প্রস্তাব করেছি শুধুই এ বছরের সমস্যাটা কাটানোর জন্য।

 

এটা ভালো একটা পরিকল্পনা হতে পারে, যদি ক্লাবগুলো সেটা মেনে নেয়।’এদিকে আবাহনীর ডাইরেক্টর ইনচার্জ কাজী নাবিল আহম্মেদও জেমি ডে’র কাছাকাছি এক প্রস্তাবের কথা বলেছেন।

 

সেটি হলো দেশিদের দিয়ে লীগের বাদবাকি অংশটুকু আয়োজনের। শেখ জামাল, বসুন্ধরা কিংস ও শেখ রাসেল চাইছে পরিস্থিতি ভালো হলে এক ভেন্যুতে হলেও লীগ খেলতে।

Please follow and like us: