মঙ্গল. অক্টো ১৫, ২০১৯

ছাত্র রাজনীতি নিষিদ্ধের বিপক্ষে প্রধানমন্ত্রী

ছাত্র রাজনীতি নিষিদ্ধের বিপক্ষে প্রধানমন্ত্রী

Last Updated on

নিজস্ব প্রতিবেদক : আবরার ফাহাদ হত্যাকাণ্ডের পর বুয়েট শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ থেকে ছাত্র রাজনীতি নিষিদ্ধের যে দাবি উঠেছে, তা নাকচ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তবে তিনি বলেছেন, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হিসেবে বুয়েট তাদের ক্যাম্পাসে ছাত্র রাজনীতি নিষিদ্ধ করতে পারে।
ছাত্রলীগের একদল নেতা-কর্মীর নির্যাতনে আবরারের মৃত্যুর পর বুয়েট শিক্ষার্থীদের আন্দোলন থেকে ছাত্র রাজনীতি নিষিদ্ধের দাবিও উঠেছে। জাতিসংঘ ও ভারত সফর থেকে ফিরে প্রধানমন্ত্রী গতকাল বুধবার গণভবনে সংবাদ সম্মেলনে এলে এই সময়ে আলোচিত বুয়েটের প্রসঙ্গটিও আসে। এক প্রশ্নের জবাবে শেখ হাসিনা বলেন, “ৃআর একটা ঘটনা ঘটেছে বলে দাবি উঠাবে যে ছাত্র রাজনীতি ব্যান। আমি নিজেই যেহেতু ছাত্র রাজনীতি করে এসেছি। সেখানে আমি ছাত্র রাজনীতি ব্যান বলব কেন?” বাংলাদেশে ছাত্র আন্দোলনের উজ্জ্বল ইতিহাস তুলে ধরে তা কলুষিত করার জন্য সামরিক শাসকদের দায়ী করেন আওয়ামী লীগ সভানেত্রী। তিনি বলেন, “নষ্ট রাজনীতি যেটা, সেটা তো আইয়ুব খান শুরু করে দিয়েছিল, আবার জিয়াউর রহমান এসে শুরু করলো একইভাবে এবং দুইজনের ক্ষমতা দখলের চরিত্র একই রকম।”
শেখ হাসিনা বলেন, “আর ছাত্ররাজনীতি বন্ধের কথা বলেন। আসলে এই দেশের প্রতিটি সংগ্রামের অগ্রণী ভূমিকা কিন্তু ছাত্ররাই নিয়েছেন। “এই যে একটা সন্ত্রাসী ঘটনা বা এই ধরনের ঘটনা ঘটেছে। অনেক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানেই তো সংগঠন করা নিষিদ্ধ আছে। বুয়েট যদি মনে করে তারা সেটা নিষিদ্ধ করে দিতে পারে। এটা তাদের উপরৃ

“কিন্তু একবারে ছাত্র রাজনীতি নিষিদ্ধ ব্যান করে দিতে হবে, এটা তো মিলিটারি ডিক্টেটরদের কথা। আসলে তারা এসে তো সবসময় পলিটিকস ব্যান ৃ. স্টুডেন্ট পলিটিক্স ব্যান তারাই করে গেছে।” বাংলাদেশে রাজনৈতিক নেতৃত্ব ছাত্র রাজনীতি থেকেই উঠে এসেছে বলে মন্তব্য করেন শেখ হাসিনা। “আমি ছাত্র রাজনীতি করেই কিন্তু এখানে এসেছি।” সরকারপ্রধান বলেন, “আমাদের দেশের অসুবিধাটা হল বারবার মিলিটারি রুলাররা এসেছে। আর এসে এসে মানুষের চরিত্র হরণ করে গেছে।”

Please follow and like us:
2