মঙ্গল. অক্টো ১৫, ২০১৯

ছাত্রলীগের বেপরোয়া কর্মকান্ডে গৌরবোজ্জ্বল ছাত্ররাজনীতি নিষিদ্ধের দাবি উঠেছে: ডাকসু ভিপি

ছাত্রলীগের বেপরোয়া কর্মকা-ে গৌরবোজ্জ্বল ছাত্ররাজনীতি নিষিদ্ধের দাবি উঠেছে: ডাকসু ভিপি

Last Updated on

নিজস্ব প্রতিবেদক : বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বুয়েট) সব ধরনের সাংগঠনিক রাজনীতি নিষিদ্ধের সিদ্ধান্ত নিয়ে নাক গলাবেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) সহ-সভাপতি (ভিপি) নুরুল হক নুর। গতকাল শনিবার দুপুরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যান্টিনে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি একথা জানান। নুরুল হক নুর বলেন, প্রতিষ্ঠান তাদের, তারা প্রতিষ্ঠানের স্বার্থে সাময়িক বা বৃহত্তর যেকোনো সিদ্ধান্ত নিতে পারে। সেটা তাদের নিজেদের ব্যাপার। আমরা এ বিষয়ে নাক গলাবো না। তবে, এ দেশে ছাত্রসমাজের গৌরবোজ্জ্বল ইতিহাস রয়েছে। আজ ক্ষমতাসীন ছাত্র সংগঠনের বেপরোয়া কর্মকা-ের কারণে ছাত্ররাজনীতি নিষিদ্ধের দাবি উঠেছে। তিনি বলেন, সামগ্রিকভাবে ছাত্ররাজনীতি বন্ধ নয়, বরং সন্ত্রাসী ছাত্ররাজনীতি, লেজুড়বৃত্তিক ছাত্ররাজনীতি বন্ধের জন্য সবার দাবি তোলা উচিত। বুয়েটের শিক্ষার্থীরা তাদের বক্তব্যে স্পষ্টভাবে বলেছে, তারা ছাত্ররাজনীতি নিষিদ্ধের দাবি জানায়নি। তারা সাংগঠনিক ছাত্ররাজনীতি নিষিদ্ধের দাবি জানিয়েছে। এসময় ছাত্রদের অধিকার নিয়ে কথা বলার জন্য ছাত্র সংসদ কার্যকরের ওপর গুরুত্বারোপ করেন ডাকসু ভিপি। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের আহ্বায়ক হাসান আল মামুন, যুগ্ম-আহ্বায়ক রাশেদ খান, ফারুক হোসেন প্রমুখ। এসময় আবরার ফাহাদ হত্যার ঘটনায় পাঁচটি দাবি উত্থাপন করা হয়। দাবিগুলো হলো- দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল গঠনের মাধ্যমে ফাহাদসহ সব ছাত্র হত্যার দ্রুত বিচার করা, নিরাপদ ও গণতান্ত্রিক ক্যাম্পাস বিনির্মাণে গণরুম, গেস্টরুম ও হলে ছাত্র সংগঠনের দখলদারিত্ব বন্ধ করে প্রশাসনের মাধ্যমে ১ম বর্ষ থেকে সিট বণ্টন নিশ্চিত করা, দ্রুত সব বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজে ছাত্র সংসদ নির্বাচন দেওয়া, ভারতের সঙ্গে করা দেশের স্বার্থবিরোধী চুক্তি বাতিল করা এবং বিশ্ববিদ্যালয়ে উপাচার্যসহ সব গুরুত্বপূর্ণ পদে নিরপেক্ষ ব্যক্তিদের নিয়োগ দিয়ে প্রশাসনকে রাজনৈতিক প্রভাবমুক্ত রাখা। সংবাদ সম্মেলন থেকে রোববার বিকেল ৪টায় শাহবাগ জাতীয় জাদুঘরের সামনে ছাত্র সমাবেশের ঘোষণা দেওয়া হয়।

Please follow and like us:
2