কার্ড জালিয়াতি করে এবার কেনাকাটা

গ্রাহকের কাছে অভিযোগটি শোনার পর তদন্ত শুরু হয়েছে বলে জানিয়েছেন বেসরকারি ব্যাংকটির হেড অফ কমিউনিকেশন্স জারা জাবীন মাহমুদ।

সম্প্রতি ঢাকায় তিনটি ব্যাংকের এটিএম বুথ থেকে গ্রাহকদের তথ্য চুরি করে ক্লোন কার্ড তৈরির মাধ্যমে লাখ লাখ টাকা তুলে নিয়েছিল একটি জালিয়াত চক্র।

ওই চক্রের সন্দেহভাজন সদস্য এক বিদেশি এবং তিন ব্যাংক কর্মকর্তাকে পুলিশ রোববার গ্রেপ্তার করে। তাদের জিজ্ঞাসাবাদের জন্য রিমান্ডেও নিয়েছে পুলিশ।

তার মধ্যেই কার্ডে কেনাকাটায় জালিয়াতির খপ্পরে পড়ার অভিযোগ করেছেন পেশাদার অলোকচিত্রী প্রীত রেজা।

শনিবার রাতে তার ব্র্যাক ব্যাংকের ডেবিট কার্ড দিয়ে ফেয়ার কানেকশন নামে একটি দোকান থেকে ২৪ হাজার ৯০০ টাকার কেনাকাটা করা হয়; যদিও সেখানে তিনি যাননি এবং কার্ডটিও সঙ্গে ছিল বলে তার দাবি।

প্রীত রেজা বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “রাত ৮টা ৫ মিনিটে আমার মোবাইলে একটা এসএমএস আসে, তাতে লেখা আমি ফেয়ার কানেকশন নামে একটি দোকান থেকে ২৪ হাজার ৯০০ টাকা কেনাকাটা করেছি।

“আমি প্রথমে মনে করেছিলাম যে আমার ব্র্যাক ব্যাংকের ডেবিট কার্ডটা হয়ত হারিয়ে ফেলেছি এবং কেউ সেটা ব্যবহার করে কেনাকাটা করেছে। কিন্তু খুঁজতেই দেখি কার্ড আমার মানি ব্যাগে। তখন আমি বুঝতে পারি, এটা জালিয়াতি।”

বিষয়টি ব্র্যাক ব্যাংকের কাস্টমার কেয়ারে জানানোর পর এ বিষয়ে তাৎক্ষণিকভাবে ‘কিছুই করার নেই’ বলে জানানো হয় বলে দাবি করেন প্রীত রেজা। তিনি বলেন, ফেয়ার কানেকশনের ঠিকানা চেয়েও পাননি তিনি।

সোমবার ব্র্যাক ব্যাংকের শাখায় গিয়ে লিখিত অভিযোগ দিয়ে এসেছেন প্রীত রেজা।

Please follow and like us:
0