করোনার প্রভাব কয়েক দশক ধরে থাকবে: বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

Last Updated on

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : করোনাভাইরাস মহামারির প্রভাব আগামী কয়েক দশক ধরে বোঝা যাবে বলে জানিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)। শুক্রবার বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার জরুরি কমিটির বৈঠকে এমন কথা জানান সংস্থার প্রধান টেড্রোস আধানম ঘেব্রেয়েসুস। খবর রয়টার্সের।

করোনাভাইরাস মহামারি শুরুর পর থেকে এ নিয়ে চারবার বৈঠক করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার জরুরি কমিটি। এই কমিটিতে মোট ১৮ জন সদস্য এবং ১২ জন উপদেষ্টা রয়েছেন। বৈঠকে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা প্রধান জানান, ‘ছ’মাস আগে আপনারা পরামর্শ দিয়েছিলেন যাতে আমি পাবলিক হেলথ এমারজেন্সি অফ ইন্টারন্যাশনাল কনসার্ন জারি করি। সেই সময় চীনের বাইরে ১০০ জনও সংক্রামিত হয়নি। একটাও মৃত্যু হয়নি। কিন্তু এখন এই মহামারি এক শতকে একবার আসা মহামারিতে পরিণত হয়েছে। এর প্রভাব আগামী কয়েক দশক ধরে বোঝা যাবে।’

তিনি বলেন, ‘অনেক দেশ মনে করছে এই সংক্রমণ শেষ হয়ে গিয়েছে, কিন্তু তখনই সেখানে দ্বিতীয়বার সংক্রমণের ঢেউ আসছে যা প্রথমবারের থেকেও ভয়ঙ্কর। তাই এখনই নিশ্চিন্ত হওয়ার সময় আসেনি। বহুদিন ধরে লকডাউন থাকায় অনেক দেশ আর্থিক সংকটের মুখে পড়েছে। তাই ভ্যাকসিন ছাড়া এই ভাইরাসের হাত থেকে বাঁচার কোনো উপায় নেই। ভ্যাকসিন বের হলেও মাথায় রাখতে হবে এই ভাইরাসের সঙ্গে বেঁচে থাকা আমাদের শিখতে হবে। কিছু কিছু জিনিস, যেমন মাস্ক পরা, হাত ধোয়া, রাস্তায় দূরত্ব বজায় রাখাকে নিজেদের অঙ্গ করে নিতে হবে আমাদের।’

বৈঠকে বিশ্বজুড়ে বর্তমান পরিস্থিতিতে আর কী ব্যবস্থা নেওয়া যেতে পারে তা নিয়ে আলোচনা হয়েছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এখনও এই ভাইরাসকে মহামারি হিসেবে দেখবে কিনা তা নিয়ে সংশয় দেখা গিয়েছে। গত ৩০ জানুয়ারি প্রথমবার করোনাকে পাবলিক হেলথ এমারজেন্সি অফ ইন্টারন্যাশনাল কনসার্ন বলে আখ্যা দিয়েছিল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।

Please follow and like us:
3
20
fb-share-icon20
Live Updates COVID-19 CASES