এবার কৃষ্ণাঙ্গ হত্যায় বিক্ষোভে উত্তাল ব্রাজিল

এবার কৃষ্ণাঙ্গ হত্যায়

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার একটি সুপারমার্কেটের সামনে দুজন শ্বেতাঙ্গ নিরাপত্তারক্ষীর হাতে এক কৃষ্ণাঙ্গ ব্যক্তি নির্মমভাবে খুন হওয়ার পর গত শুক্রবার থেকে ব্রাজিলজুড়ে শুরু হয়েছে ব্যাপক বর্ণবাদবিরোধী বিক্ষোভ।
পোর্তো অ্যালেগ্রি এলাকার ক্যারফুর স্টোরের নিরাপত্তারক্ষীরা জোয়াও অ্যালবার্টো সিলভেইরা ফ্রেইটাসের (৪০) মুখে একাধিকবার ঘুষি মেরে তাকে হত্যা করছেন; এমন ভিডিও ছড়িয়ে পড়লে দেশজুড়ে এ বিক্ষোভ শুরু হয়।
ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির শনিবারের এক অনলাইন প্রতিবেদন অনুযায়ী কৃষ্ণাঙ্গ হত্যায় জড়িত ওই দুই নিরাপত্তারক্ষীকে আটক করা হয়েছে। এদের মধ্যে একজন অফ ডিউটিতে থাকা সামরিক পুলিশ কর্মকর্তা। ব্রাজিলের দক্ষিণের এই শহরটিতে বৃহস্পতিবার রাতের ওই ঘটনার পর ফ্রান্সের সুপারমার্কেট গ্রুপ ক্যারফুর বলেছে, যে নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠান তাদেরকে কর্মী সরবরাহ করে, সেই প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করেছে তারা। ভিডিও ফুটেজে দেখা যায়, পেশায় ওয়েল্ডার সিলভেইরাকে এক নিরাপত্তারক্ষী ধরে রেখেছেন আর অপরজন তার মুখ ও মাথায় ঘুষি মারছেন। ওই সময় সুপারমার্কেটের একজন কর্মী দৃশ্যটি মোবাইলে ধারণ করছেন। ভিডিওটি দ্রুত ছড়িয়ে পড়লে শুক্রবার সকালে বিক্ষোভকারীরা পোর্তো অ্যালিগ্রির ক্যারফুর স্টোরের সামনে বর্ণবাদবিরোধী প্ল্যাকার্ড নিয়ে বিক্ষোভ করেন। দেশটির অন্যান্য শহরগুলোতেই এ বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়েছে। গত মে মাসে যুক্তরাষ্ট্রে শ্বেতাঙ্গ পুলিশ সদস্যদের হাতে কৃষ্ণাঙ্গ জর্জ ফ্লয়েডের হত্যার ঘটনায় বিশ্বজুড়ে ‘ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার’ আন্দোলন শুরু হয়। এ ঘটনাকে জর্জ ফ্লয়েডের ওই ঘটনার সঙ্গে তুলনা করছেন অনেকে।
বিবিসি জানাচ্ছে, ২০১৯ সালজুড়ে যুক্তরাষ্ট্রে পুলিশের গুলিতে যত মানুষের প্রাণ গেছে তার চেয়ে ব্রাজিলে দেশটিতে পুলিশের হাতে তার চেয়ে ছয় গুণ মানুষ বেশি প্রাণ হারিয়েছেন। আর এর মধ্যে বেশিরভাগই কৃষ্ণাঙ্গ। লাতিন আমেরিকার সর্ববৃহৎ দেশ ব্রাজিলে বর্ণবাদের ইতিহাস বহু পুরনো। দুই আমেরিকা মহাদেশের মধ্যে সবশেষ দেশ হিসেবে ১৮৮৮ সালে দেশটিতে দাসপ্রথার আনুষ্ঠানিক বিলুপ্তি ঘটলেও বর্ণবিদ্বেষ রয়ে গেছে।

Please follow and like us: