আর্জেন্টিনা দলে নেই দি মারিয়া-আগুয়েরো

ক্রীড়া ডেস্ক : মাঝে ছয় মাস কেটে গেছে। এর মাঝে নিজের সামর্থ্য নতুন করে দেখিয়েছেন আনহেল দি মারিয়া। তারপরও জায়গা পাননি আর্জেন্টিনা দলে। তার মতোই একুয়েডর ও বলিভিয়ার বিপক্ষে বিশ্বকাপ বাছাই পর্বের প্রথম দুই ম্যাচের দলে নেই সের্হিও আগুয়েরো। আতালান্তার হয়ে নিজেকে দারুণভাবে মেলে ধরা আলেহান্দ্রো গোমেস ফিরেছেন দলে। আগামী ৮ অক্টোবর একুয়েডর ম্যাচ দিয়ে বিশ্বকাপে জায়গায় পাওয়ার লড়াই শুরু করবে আর্জেন্টিনা। পাঁচ দিন পর বলিভিয়ার মুখোমুখি হবে দুইবারের চ্যাম্পিয়নরা। প্রাথমিক সূচি অনুযায়ী ম্যাচ দুটি হওয়ার কথা ছিল গত মার্চে। তবে বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসের ছোবলে দুই দফায় সূচি স্থগিত হয়। অবশেষে গত বৃহস্পতিবার ফিফার পক্ষ থেকে জানানো হয়, পরিবর্তিত পরিকল্পনা অনুযায়ী অক্টোবরে মাঠে গড়াবে দক্ষিণ আমেরিকা অঞ্চলের বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব। এর পরদিনই দল ঘোষণা করল আর্জেন্টিনা।
নিষেধাজ্ঞা থেকে মুক্তি পাওয়া লিওনেল মেসি অনুমিতভাবেই আছেন শুক্রবার লিওনেল স্কালোনির দেওয়া ৩০ সদস্যের দলে। ২০১৭ সালে সবশেষ আর্জেন্টিনার হয়ে খেলা গোমেসের দুর্দান্ত কেটেছে গত মৌসুম। সেরি আ ও চ্যাম্পিয়ন্স লিগে আতালান্তার নজরকাড়া ফুটবলের প্রাণ ছিলেন এই ফরোয়ার্ড। ২০১৮ সালে সবশেষ দেশের হয়ে খেলা জিওভানি সিমেওনেও ডাক পেয়েছেন দলে। পিএসজির হয়ে সময়টা বেশ ভালো কাটছে দি মারিয়ার। তবুও বেড়েছে তার অপেক্ষা। অস্ত্রোপচারের পর এখনও ঠিকঠাক অনুশীলন শুরু করতে না পারা আগুয়েরো স্বাভাবিকভাবেই নেই দলে। আর্সেনাল ছেড়ে অ্যাস্টন ভিলায় যোগ দেওয়া আর্জেন্টিনার সবচেয়ে দামি গোলকিপার এমিলিয়ানো মার্তিনেস ডাক পেয়েছেন দলে। অন্য দুই গোলকিপার হুয়ান মুসো ও আগুস্তিন মার্চেসিন।
আর্জেন্টিনা :
গোলরক্ষক: এমিলিয়ানো মার্তিনেস (অ্যাস্টন ভিলা), হুয়ান মুসো (উদিনেজে), আগুস্তিন মার্চেসিন (পোর্তো)
ডিফেন্ডার: হুয়ান ফয়েথ (টটেনহ্যাম হটস্পার), রেনসো সারাভিয়া (ইন্তারনাসিওনাল), হের্মান পেস্সেইয়া (ফিওরেন্তিনা), লিওনার্দো বালের্দি (মার্সেই), নিকোলাস ওতামেন্দি (ম্যানচেস্টার সিটি), নেহুয়েন পেরেস (আতলেতিকো মাদ্রিদ), ওয়াল্তার কান্নেমান (গ্রেমিও), নিকোলাস তাগলিয়াফিকো (আয়াক্স), মার্কোস আকুনা (সেভিয়া), ফাকুন্দো মেদিনা (লেস)
মিডফিল্ডার: লেয়ান্দ্রো পারেদেস (পিএসজি), গিদো রদ্রিগেস (বেতিস), রদ্রিগো দে পল (উদিনেজে), এসেকিয়েল পালাসিওস (বায়ার লেভারকুজেন), জিওভানি লো সেলসো (টটেনহ্যাম হটস্পার), নিকোলাস দোমিনগেস (বোলোনা)
ফরোয়ার্ড: লিওনেল মেসি (বার্সেলোনা), পাওলো দিবালা (ইউভেন্তুস), লুকাস ওকামপোস (সেভিয়া), নিকোলাস গনসালেস (স্টুটগার্ট), আলেক্সিস মাক আয়িস্তের (ব্রাইটন অ্যান্ড হোভ অ্যালবিওন), আলেহান্দ্রো গেমেস (আতালান্তা), হোয়াকিন কোররেয়া (লাৎসিও), লুকাস আলারিও (লেভারকুজেন), লাউতারো মার্তিনেস (ইন্টার মিলান), ভিওভানি সিমেওনে (কাইয়ারি) ও ক্রিস্তিয়ান পাভোন (লা গ্যালাক্সি)।

Please follow and like us: