আমনের ফসলে পোকার বাসা, বিপাকে কৃষক

আমনের ফসলে পোকার বাসা

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি : সিরাজগঞ্জের কামারখন্দ উপজেলায় রোপা আমন ধানে পাতা মোড়ানো পোকার আক্রমণে হতাশ হয়ে পড়েছেন কৃষকরা। পাতা মোড়ানো পোকার আক্রমণে ধানগাছ প্রথমে হলুদ পরে শুকিয়ে বাদামি রং ধারণ করছে- এমনটাই অভিযোগ কৃষকের। কৃষকরা বলেন, কীটনাশক বা বিষ ছিটিয়েও কোনো ফল পাওয়া যাচ্ছে না। ফসলের মাঠজুড়ে শুধু পোকা আর পোকা। পোকা দমনে বাজারে যে সকল কীটনাশক পাওয়া যাচ্ছে সেগুলোতেও কোনো কাজ হচ্ছে না। এমনকি কীটনাশক স্প্রে করার পরও কোন লাভ হচ্ছে না। ফলে আমনের ফলন নিয়ে দুশ্চিন্তায় আছেন কৃষক। সময় মতো পোকা দমন করতে না পারলে এবার রোপা আমন উৎপাদন ব্যাহত হতে পারে বলে মনে তারা।
উপজেলার ভদ্রঘাট ইউনিয়নের হাটগারা গ্রামের কৃষক আব্দুল হামিদ, সাদ্দাম হোসেন, হযরত আলী, জাফর সেখ জানান, কড়া সুদে ঋণ নিয়ে এবার আমন ধান চাষ করেছিলেন। ধান বের হতে না হতেই পোকার আক্রমণ দেখা দিয়েছে। এই পোকা ধান গাছের পাতা খেয়ে বিবর্ণ করে ফেলছে। এদিকে মাঠে পাওয়া যাচ্ছে না কৃষি অফিসের কোনো পরামর্শদাতাকে। তাই অনেকটা বাধ্য হয়েই সার বিক্রেতার পরামর্শ অনুযায়ী কীটনাশক স্প্রে করছেন। কিন্তু কোনো কাজ হচ্ছে না। এবার ধানের ফলন নিয়ে খুব চিন্তায় আছে।
একই গ্রামের কৃষক ফারুক আহমেদ বলেন, এ বছর প্রায় আমার ৮ বিঘা জমিতে পোকা আক্রমণ করেছে। কীটনাশক স্প্রে করেও পোকা দমন করা যাচ্ছে না। কৃষি কর্মকর্তাদেরও মাঠে পাওয়া যাচ্ছে না। তাই তিনি শঙ্কায় আছেন যদি ফলন ভালো না হয়, তাহলে পরিবার নিয়ে পথে বসতে হবে এমনটাই বললেন তিনি। উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, এ বছর উপজেলায় ৫ হাজার ২৭০ হেক্টর জমিতে রোপা আমন ধানের চাষ হয়েছে। এর মধ্যে লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছিল প্রায় ৫ হাজার ১০০ হেক্টর জমিতে। কামারখন্দ উপজলো কৃষি সম্প্রসারণ র্কমর্কতা আনোয়ার সাহাদ বলেন, পাতা মোড়ানো পোকার আক্রমণ দেখা দিয়েছে এমন তথ্যের ভিত্তিতে আমরা সরজমিনে পরিদর্শন করেছি। এতে কৃষকদের হতাশা হবার কিছু নেই পোকা দমনে আমরা মাঠ পর্যায়ে কাজ করছি। এদিকে বাড়তি সুদে এ বছর আমন ধানের আবাদ করেছিলেন কৃষকরা । কিন্তু সেই ধানে পোকার আক্রমণ দেখা দেয়ায় লোকসানের আশঙ্কায় দিশেহারা হয়ে পড়েছেন। এই বিপদের দিনে কৃষি কর্মকর্তারাও মাঠে নেই বলে অভিযোগ করেছেন কৃষকরা। তবে সংশ্লিষ্ট বিভাগ সেই অভিযোগ নাকচ করে বলছে, কিছু কিছু আমন ক্ষেতে পাতা মোড়ানো পোকা রোগ দেখা দিয়েছে। বিষয়টি জানার পর কৃষি বিভাগ মাঠে যায়। তবে যে পোকা আক্রমণ করেছে তা নিয়ন্ত্রণের মধ্যে রয়েছে। এই অবস্থা কাটিয়ে উঠতে কৃষকদের পরামর্শ দেয়া হচ্ছে। তারপরও এসব রোগ-বালাই নিয়ন্ত্রণে আনতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। মাঠ পর্যায়ে কৃষি কর্মকর্তারা কাজ করছেন ও পরামর্শ প্রদান করছেন।

Please follow and like us:
0