বৃহঃ. নভে ১৪, ২০১৯

আন্দোলনের মুখে বন্ধ চুয়েট, শিক্ষার্থীদের হল ত্যাগের নির্দেশ

আন্দোলনের মুখে বন্ধ চুয়েট, শিক্ষার্থীদের হল ত্যাগের নির্দেশ

Last Updated on

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি : নিরাপদ সড়কের দাবিতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের মুখে চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (চুয়েট) বন্ধ ঘোষণা করেছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। গতকাল মঙ্গলবার দুপুর ১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের এক আদেশ বলে এ ঘোষণা দেওয়া হয়। মঙ্গলবার বিকেল ৫টার মধ্যে ছাত্রদের এবং আজ বুধবার সকাল ১০টার মধ্যে ছাত্রীদের হল ত্যাগের নির্দেশ দেওয়া হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার ড. ফারুক উজ জামান চৌধুরী জানান, আন্দোলনের জন্য নয়, ঈদুল আজহার ছুটি এগিয়ে আনা হয়েছে। তিনি জানান, গতকাল মঙ্গলবার থেকে আগামি ২৭ আগস্ট পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ থাকবে। এজন্য হল ত্যাগের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। চুয়েটের শিক্ষার্থীরা জানায়, নিরাপদ সড়কের দাবিতে তিনদিন ধরে আন্দোলন করছে তারা। এর মধ্যে গত রোববার রাউজান ছাত্রলীগ ও যুবলীগের কর্মীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা করলে আন্দোলন আরো তীব্র হয়ে ওঠে। গত ২৯ জুলাই রাজধানীর কুর্মিটোলার বিমানবন্দর সড়কে জাবালে নূর পরিবহনের বাসের চাপায় দুই কলেজ শিক্ষার্থী নিহত হয়। এ ছাড়া আহত হয় বেশ কয়েকজন। নিহত শিক্ষার্থীরা হলো শহীদ রমিজ উদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট কলেজের একাদশ শ্রেণির বিজ্ঞান বিভাগের ছাত্রী দিয়া খানম মিম ও দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্র আবদুল করিম রাজীব। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিহতদের প্রত্যেক পরিবারকে এরইমধ্যে ২০ লাখ টাকার অনুদান দিয়েছেন। নৌমন্ত্রী শাজাহান খানও নিহতদের প্রত্যেক পরিবারকে পাঁচ লাখ টাকা অনুদান দিয়েছেন। এ ঘটনার প্রতিবাদে রাস্তায় বিক্ষোভে ফেটে পড়ে স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা। তারা বিভিন্ন যানবাহনের লাইসেন্স পরীক্ষা করতে শুরু করে। কিছুকিছু জায়গায় তাদের ওপর হামলা চালায় ক্ষমতাসীন দলের নেতাকর্মীরা। তাদের ওপর হামলার প্রতিবাদে ও নিরাপদ সড়কের দাবিতে রাজধানীসহ সারা দেশের সরকারি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরাও আন্দোলনে যোগ দেয়।

Please follow and like us:
3