আইএফসি ও ওমেরা পেট্রোলিয়ামের মধ্যে ২০ মিলিয়ন ডলার বিনিয়োগের চুক্তি

আইএফসি ও ওমেরা পেট্রোলিয়ামের মধ্যে ২০ মিলিয়ন ডলার বিনিয়োগের চুক্তি

Last Updated on

অর্থনৈতিক প্রতিবেদক : বিশ্বব্যাংকের অঙ্গপ্রতিষ্ঠান ইন্টারন্যাশনাল ফিন্যান্স করপোরেশন (আইএফসি) ২০ মিলিয়ন ডলার ঋণ সহায়তা প্রদানের জন্য ওমেরা পেট্রোলিয়ামের সাথে এক বিনিয়োগ চুক্তি স্বাক্ষর করেন। গতকাল মঙ্গলবার এ চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠিত হয়। আইএফসির পক্ষে কান্ট্রি প্রধান (চলতি দায়িত্ব) নুজহাত আনোয়ার ও ওমেরার পক্ষে আকতার হোসেন সান্নামাত এফসিএ এ চুক্তি স্বাক্ষর করেন।
কোভিড- ১৯ এর ফলে সৃষ্ট চ্যালেঞ্জ মোকাবিলার জন্য আইএফসি এই আর্থিক সহায়তা প্রদান করবে ওমেরা পেট্রোলিয়ামকে। বিনিয়োগ ,স্টোরেজ ও ফিলিং ক্যাপাসিটি বিবেচনায় বাংলাদেশের সর্ববৃহৎ কোম্পানি ওমেরা পেট্রোলিয়ামকে দ্বিতীয়বারের জন্য আইএফসি এই ঋণ সুবিধা দিতে যাচ্ছে। এই তহবিল ওমেরা এলপিজি আমদানী ঋণ পরিশোধে ব্যবহার করবে।
আইএফসির বৈদিশিক মুদ্রার এই বিনিয়োগ ওমেরার জন্য খুবই উল্লেখ্যযোগ্য, যা কোম্পানির উৎপাদন ও বিক্রয় কার্যক্রম চলমান রাখতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। আইএফসির সাথে সর্ম্পক ও অংশীদারিত্ব খুবই দৃঢ । এবং আমরা আইএফসির সামাজিক ও পরিবেশগত দায়বদ্ধতা প্রতিপালনে সর্বদা প্রতিশ্রুতবদ্ধ, বলেন ওমেরা এলপিজির প্রধান অর্থ কর্মকর্তা আকতার হোসেন সান্নামাত এফসিএ।
তিনি আরো বলেন, এতে করে সারাদেশে বিশেষ করে প্রত্যন্ত অঞ্চলে এর সহজলভ্যতা নিশ্চিত করবে। আইএফসির এই ঋণের মাধ্যমে এলপিজি সরবরাহের সক্ষমতা দ্বিগুণ হবে এবং প্রায় প্রত্যেক উপজেলায় এর প্রাপ্যতা নিশ্চিত হবে।
উল্লেখ্য ওমেরা এলপিজি এমজেএল বাংলাদেশ লিমিটেড এর সাবসিডিয়ারি কোম্পানি। ২০১৫ সালে এফএমও এবং বৃহত্তম এলপিজি কোম্পানি বিবি এনার্জির সাথে যৌথ উদ্যোগে ওমেরার যাত্রা শুরু হয়। বর্তমানে ওমেরার ৪টি এলপিজি উৎপাদন কারখানা রয়েছে। যার প্রধান টার্মিনাল মংলায় অবস্থিত। ওমেরার রয়েছে প্রায় ১০ হাজার মেট্রিকটন ধারণ ক্ষমতা সম্পন্ন স্টোরেজ ব্যবস্থা এবং দৈনিক ৬০ হাজার সিলিন্ডার রিফিলিং করার সক্ষমতা, ৩টি এলপিজি বহনকারী অত্যাধুনিক বার্জ ছাড়াও কোম্পানির রয়েছে ৩৪টি রোড ট্যাংকার। ওমেরা একইসাথে এইএসও ৯০০০:২০১৫ এইএসও ৪৫০০:২০১৫সনদপ্রাপ্ত। ওমেরা ২০১৯ সাল থেকে ভারতে এলপিজি রপ্তানি করে আসছে।

Please follow and like us:
3
20
fb-share-icon20
Live Updates COVID-19 CASES